ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১শে জানুয়ারি ২০২১ ইং | ৮ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Breaking News

করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন দ্রুত আনার চেষ্টা: প্রধানমন্ত্রী

করোনা ভাইরাসের ভ্যাকসিন দ্রুত আনার চেষ্টা করছে সরকার। টিকা পেলেই এ সঙ্কটের সম্মুখসারীর যোদ্ধাদের অগ্রাধিকারভিত্তিতে দেয়া হবে। পরিস্থিতির উন্নতি হলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খুলে দেয়া হবে।

সরকারের বর্তমান মেয়াদের দুই বছর পূর্তি ও তৃতীয় বছরে পদার্পণ উপলক্ষ্যে বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় জাতির উদ্দেশে ভাষণে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সরকারপ্রধান বলেন, করোনাভাইরাসের কারণে এক গভীর সঙ্কটের মধ্য দিয়ে আমাদের ২০২০ সাল অতিক্রম করতে হয়েছে। সেই সঙ্গে ঘূর্ণিঝড় আম্ফান এবং উপর্যুপরি বন্যা আমাদের অর্থনীতির ওপর বিরূপ প্রভাব ফেলে। আমরা সেসব ধকল দৃঢ়তার সঙ্গে কাটিয়ে উঠতে সক্ষম হয়েছি। কিন্তু করোনাভাইরাসজনিত সঙ্কট থেকে বিশ্ব এখনো মুক্ত হয়নি।

দেশবাসীকে আশ্বস্ত করে শেখ হাসিনা বলেন, করোনাকালেও থেমে নেই অর্থনৈতিক অগ্রযাত্রা। যা এগিয়ে নিতে সবার সহযোগিতা চান তিনি।

ভাষণের শুরুতেই প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীকে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানান। তিনি বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়ন অভিযাত্রার এক গুরুত্বপূর্ণ সন্ধিক্ষণে এবং বৈশ্বিক মহামারির অস্বাভাবিক পরিস্থিতিতে আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি। দুই বছর পূর্বে আজকের এই দিনে তৃতীয় মেয়াদে সরকার পরিচালনার যে গুরুদায়িত্ব আপনারা আমার ওপর অর্পন করেছিলেন, সেটিকে পবিত্র আমানত হিসেবে গ্রহণ করে আমরা সরকার পরিচালনার তৃতীয় বছর শুরু করতে যাচ্ছি।

বঙ্গবন্ধুকন্যা বলেন, আমার পরম সৌভাগ্য যে, আপনাদের সবার সঙ্গে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী পালন করতে পারছি এবং মহান স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর দ্বারপ্রান্তে উপনীত হয়েছি। এই শুভ মুহূর্তে আমি দেশ ও দেশের বাইরে অবস্থানরত বাংলাদেশের সব নাগরিককে অভিনন্দন জানাচ্ছি এবং একইসঙ্গে খ্রিস্টীয় ২০২১-এর শুভেচ্ছা।

শেখ হাসিনা বলেন, আজ দেশের প্রায় সব গ্রামে পাকা সড়ক নির্মাণ করা হয়েছে। ২০০৯ থেকে ২০২০ পর্যন্ত পল্লি এলাকায় ৬৩ হাজার ৬৫৫ কিলোমিটার সড়ক উন্নয়ন, ৩ লাখ ৭৬ হাজার ব্রিজ-কার্লভার্ট, ১ হাজার ৬৮৫টি ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবন, ৯৩৬ টি সাইক্লোন সেন্টার এবং ২৪৯টি উপজেলা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ করা হয়েছে।

২০০৯ থেকে ২০২০ সালের মধ্যে ৪৫৩ কিলোমিটার জাতীয় মহাসড়ক ৪ বা তদুর্ধ্ব লেনে উন্নীত করা হয়েছে তুলে ধরে তিনি বলেন, আরও ৬৬১ কিলোমিটার মহাসড়ক চার এবং তদুর্ধ্ব লেনে উন্নীত করার কাজ চলছে। ঢাকায় বিমানবন্দর থেকে কুতুবখালী পর্যন্ত ৪৬.৭৩ কিলোমিটার এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের নির্মাণ কাজ ২০২৩ সাল নাগাদ শেষ হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, ২০০৯ থেকে ২০২০ পর্যন্ত ৪৫১ কিলোমিটার নতুন রেলপথ নির্মাণ এবং ১ হাজার ১৮১ কিলোমিটার রেলপথ পুনর্বাসন করা হয়েছে। ৪২৮টি নতুন রেলসেতু নির্মাণ করা হয়েছে। কিছুদিন আগে আমরা যমুনা নদীর উপর ৪.৮ কিলোমটির দীর্ঘ বঙ্গবন্ধু রেলওয়ে সেতুর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছি। লোকোমোটিভ যাত্রীবাহী ক্যারেজ এবং মালবাহী ওয়াগন সংগ্রহ করা হয়েছে ১ হাজার ৪০টি। এ সময় বাংলাদেশ রেলওয়েতে ১৩৭টি নতুন ট্রেন চালু করা হয়েছে।

You must be Logged in to post comment.

বোদায় ভূমি ও গৃহহীন ৫৫টি পরিবারের জন্য ঘর প্রস্তুত     |     গৃহকর্ত্রীকে নির্যাতন করে পালানো গৃহকর্মী ঠাকুরগাঁওয়ে গ্রেফতার     |     রূপসায় কর্তৃপরে দায়িত্বহীনতার কারণে আজও মানবেতর জীবনযাপন করছে আশ্রায়ন প্রকল্প – ১ এর অধিবাসীরা     |     গাংনীতে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের অভিযান। দুটি বেকারীকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা     |     ঠাকুরগাঁওয়ে পৌর নির্বাচনে ঋণখেলাপি হয়েও বৈধ হলো আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রার্থী ।     |     সুন্দরগঞ্জে ইউপি সদস্য পদে উপ-নির্বাচনের গণবিজ্ঞপ্তি     |     সাতক্ষীরায় শেখ হাসিনার গাড়িবহরে হামলার মামলায় তৃতীয় দিনের মত যুক্তিতর্ক উপস্থাপন     |     ঠাকুরগাঁওয়ে দৈনিক ভোরের দর্পনের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত ।     |     আটোয়ারীতে কৃষক সমবায় সমিতির উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ     |     পঞ্চগড়ে শৈত্যপ্রবাহের সাথে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১১ ডিগ্রিতে।     |