ঢাকা, সোমবার, ১২ই এপ্রিল ২০২১ ইং | ২৯শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

কলারোয়ায় ফোর মার্ডারের ঘটনায় আরো একজনের সাক্ষ্য গ্রহণ

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি : সাতক্ষীরার কলারোয়ার হেলাতলা ইউনিয়নের খলিসা গ্রামে একই পরিবারের ৪ জনকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় আদালতে আরো একজন সাক্ষী দিয়েছে। রোববার দুপুরে সাতক্ষীরা জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুল ইসলাম এ জবানবন্দি গ্রহণ করেন।
ঘটনার বিবরনে জানা যায়, কলারোয়া উপজেলার হেলাতলা ইউনিয়নের খলিষা গ্রামের শাহজাহান ডাক্তারের ছোট ছেলে রায়হানুর রহমান (৩৬) বেকারত্বের কারণে বড় ভাই শাহীনুরের সংসারে সে খাওয়া দাওয়া করতো। শারীরিক অসুস্থতার কারণে কোন কাজ না করায় গত বছরের ১০ জানুয়ারি তার স্ত্রীকে তালাক দেয় রায়হানুর। সংসারে টাকা দিতে না পারায় তার ভাই শহীনুরের স্ত্রী সাবিনা খাতুন তার দেবর রায়হানুরকে মাঝে মাঝে গালমন্দ করতো। এরই জের ধরে গত বছরের ১৪ অক্টোবর রাতে ভাই শাহীনুর রহমান (৪০), ভাবী সাবিনা খাতুন (৩০), তাদের ছেলে ব্রজবক্স সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্র সিয়াম হোসেন মাহী (১০) ও মেয়ে একই বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রী তাসমিন সুলতানাকে (৮) কোমল পানীয় এর সাথে ঘুমের বাড়ি খাওয়ায়। এরপর ভোর চারটার দিকে হাত ও পা বেঁধে তাদেরকে একে একে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে নৃশংসভাবে হত্যা করে। হত্যাকারীরা ওই পরিবারের ৪ মাসের শিশু মারিয়াকে হত্যা না করে লাশের পাশে ফেলে রেখে যায়। এ ঘটনায় নিহত শাহীনুরের শ্বাশুড়ি কলারোয়া উপজেলার উফাপুর গ্রামের রাশেদ গাজীর স্ত্রী ময়না খাতুন বাদি হয়ে কারো নাম উল্লেখ না করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার তদন্তে নেমে সিআইডি সন্দিগ্ধ আসামী হিসেবে শাহীনুরের ভাই রায়হানুর রহমান, একই গ্রামের রাজ্জাক দালাল, আব্দুল মালেক ও ধানঘরা গ্রামের আসাদুল সরদারকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারকৃত রায়হানুরকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে ২১ অক্টোবর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম বিলাস মন্ডলের কাছে একাই হত্যার দায় স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেয়। নিহত পরিবারে বেঁচে থাকা একমাত্র শিশু মারিয়া বর্তমানে হেলাতলা ইউপি সদস্য নাছিমা খাতুনের জিম্মায় রয়েছে। গত ২৪ নভেম্বর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডি’র পুলিশ পরিদর্শক শফিকুর রহমান আসামী রায়হানুর রহমানের নাম উল্লেখ করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। পরবর্তীতে এ মামলায় ৩০২ ধারায় অভিযোগ গঠণের পর বাদি ময়না খাতুন আদালতে সাক্ষ্য দেন।
সাতক্ষীরা জজ কোর্টের পিপি অ্যাড. আব্দুল লতিফ জানান, মামলার জব্দ তালিকা ও সুরতহাল প্রতিবেদনের সাক্ষী কলারোয়া থানার উপ-পরিদর্শক ইসরাফিল হোসেন রোববার আদালতে সাক্ষী দিয়েছেন। জব্দ তালিকার সাক্ষী হিসেবে সিআইডি’র পুলিশ পরিদর্শক শফিকুর রহমানকে সাক্ষী দেওয়ার জন্য আগামি ২ ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য করা হয়েছে।

You must be Logged in to post comment.

ঘাটাইলে চাঁদা না দেওয়ায় মুক্তিযোদ্ধার বাড়ি-ঘর ভাংচুরে পুলিশ সুপার বরাবর অভিযোগ     |     সুন্দরগঞ্জে রাস্তার ধারে পুকুর খননে জরিমানা     |     ঠাকুরগাঁওয়ে সড়ক সংস্কার কাজের ব্যাপক অনিয়ম     |     ঝিকরগাছায় সরকারী আইন অমান্য করলে কোন ছাড় নাই -ইউএনও আরাফাত রহমান     |     ঠাকুরগাঁওয়ে রানীশংকৈলের ভুমি অফিসের অফিস সহায়ক রবি চন্দ্রের দূর্ণীতি –  ঘুষ দিয়েও ঘর পায়নি ফাতেমা ।     |     গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরে সিএনজি মোটর সাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষে যুবক নিহত     |     ঠাকুরগাঁওয়ে প্রশান্ত মেডিক্যাল কলেজে ভর্তি পরীক্ষায় উত্তীর্ন হয়েও  পরিবারে নেমে এসেছে দু:শ্চিন্তা ।     |     সাতক্ষীরায় দিনে দুপুরে বন্ধুকে হত্যার ঘটনায় আদালতে স্বীকারোক্তি     |     বাংলাদেশের উন্নয়নে কৃষকের বড় ধরনে ভুমিকা রয়েছে, এ জন্য কৃষকের পাশের দাড়ানো প্রয়োজন সংসদ সদস্য এ্যাডঃ শফিকুল আজম খান     |     সাতক্ষীরায় করোনা সংক্রমন দিন দিন বাড়ছে, মানছেনা সামাজিক দূরত্ব     |