ঢাকা, শনিবার, ৬ই মার্চ ২০২১ ইং | ২২শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ

গাংনীতে রেকর্ডকৃত বৈধ মালিকানা জমি দখল নিতে পুলিশের সহযোগিতায় ভাংচুর : বিচারের আশায় মালিক দ্বারে দ্বারে

আমিরুল ইসলাম অল্ডাম মেহেরপুর প্রতিনিধি: মেহেরপুরের গাংনীতে রেকর্ডকৃত বৈধ মালিকানা জমি রাজনৈতিক প্রভাব দেখিয়ে জবরদখলের পায়তারা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে উপজেলার চেংগাড়া গ্রামে প্রতিপক্ষ মৃত রফিজউদ্দীনের ছেলে মোমিন, বারেক, খলিল, দুলাল গং একই গ্রামের মৃত করিমন নেছার ছেলে তোফাজ্জেল হোসেনএর রেকর্ডকৃত জমি জবর দখলের পায়তারা চালাচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছ্ ে। এসব ব্যক্তিবর্গ কোন রকম কাগজপত্র না থাকলেও রাস্তার দাবিতে জমি জবর দখলের পায়তারা চালাচ্ছে। প্রতিপক্ষ মৃত রফিজউদ্দীনের ছেলে মোমিন, বারেক, খলিল, দুলাল গং মুন্সেফ আইন অমান্য করে লোকজন নিয়ে জমি জবরদখল করার হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। এই বিরোধ পূর্ণ জমি নিয়ে দেওয়ানী আদালতে মামলা বিচারাধীন রয়েছে।
অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার চেংগাড়া গ্রামে সরেজমিনে ঘুরে জানা গেছে, উপজেলার চেংগাড়া জেএল নং-৬২ অন্তর্গত আর,এস খতিয়ান নং-২৮০, দাগ নং-৮৮১ জমির পরিমান ১৪ শতাংশ নালিশী জমি । মালিকানা সূত্রে জমি যথারীতিতোফাজ্জেল হোসেন ভোগদখল করে আসছিলেন, জমিতে খড়ির ঘর , তামাক ঘর ও বিভিন্ন প্রকার গাছ পালা রয়েছে।
জমির মালিক তোফাজ্জেল হোসেন জানান, ১৯৪৭ সালে ফর্দিমূলে আমার মা উক্ত খতিয়ানের ৮৮১ দাগের ১৪ শতক জমি করিমন নেছার নামে বন্দোবস্ত প্রাপ্ত হয়। উক্ত জমি এস এ রেকর্ড ও আর এস রেকর্ড সম্পন্ন হয়েছে। রেকর্ড মূলে পৃথক হোল্ডিং ,খারিজ ও খাজনা চলমান রয়েছে। এখানে উল্লেখ্য, জমির শ্রেণিতে ডহর লেখা থাকলেও্র সরকার বা ভুমি অফিস রেকর্ডের সময় শ্রেণি বদল না করে মালিককে বন্দোবস্ত দেয়। বর্তমানে এটি কোন খাস খতিয়ানের জমি নয়। সেকারনে ডহর উল্লেখ থাকলেও জমি মালিকানা সত্বে বহাল রয়েছে।বর্তমানে রাজনৈতিক নেতাদের চাপে থানা পুলিশের একটি দল আমার বাড়িতে এসে আমার ঘরবাড়ি ভেঙ্গে দিয়েছে। উচ্ছেদের হুমকি দিচ্ছে। বৈধ কাগজ পত্র থাকলেও আমি পুলিশের ভয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে বেড়াচ্ছি।
জমি নিয়ে প্রতিপক্ষ মোমিন জানান, আমরা দীর্ঘ ৫০-৬০ বছর যাবৎ পরিবার পরিজন নিয়ে এখানে বসবাস করে আসছি। আমরা জানতাম আমাদের বাড়ি থেকে গ্রামের প্রধান রাস্তায় উঠতে যে পথটি ব্যবহার করতাম সেটি যে রেকর্ড হয়েছে তা আমাদের জানা নেই। আমরা রেকর্ড বাতিলের জন্য মুন্সেফে মামলা করেছি। বর্তমানে আমাদের রাস্তা বন্ধ করে রেখেছে।আমরা ৮/১০ ঘর পরিবার অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছি।
এব্যাপারে গাংনী উপজেলা সহকারী কমিশনার ভ’ূমি ) নূর ই আলম সিদ্দিকী জানান, বিষয়টি নিয়ে আমরা কাগজ পত্র দেখেছি। তোফাজ্জেল হোসেনের নামে ২ টি রেকর্ড রয়েছে। হোল্ডিং, খারিজ খাজনা চলমান তাই আমরা এক্ষেত্রে কিছুই করতে পারবো না। আমরা কাগজপত্র মুন্সেফ আদালতে প্রেরণ করেছি। আদালতের সিদ্ধান্ত ছাড়া কিছুই বলা যাবে না। তার বৈধ জমি থেকে উচ্ছেদ বা জবরদখল করাটাও ঠিক হবে না।
এব্যাপারে গাংনী থানার ওসি তদন্ত সাজেদুল ইসলাম জানান, চেংগাড়া গ্রামের পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি।শৃ্খংলা রক্ষায় আমরা পুলিশ পাঠিয়েছি। তবে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া এক্ষণে সম্ভব না। জমি জমা সংক্রান্ত বিষয়টি আদালতের। উভয়পক্ষকে নিয়ে সমস্যাটার একটা সুরাহা করার উদ্যোগ নেয়া হবে।

You must be Logged in to post comment.

সাতক্ষীরা প্রেসক্লাব নির্বাচনে সম্মিলিত সাংবাদিক ঐক্য পরিষদের বাপী-সুজন প্যানেল বিজয়ী     |     গাংনীর ধানখোলা বাজার কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন ফারুক সভাপতি টোকন সেক্রেটারী     |     সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদে ও আসামীদের গ্রেফতারের দাবীতে ঝিনাইদহে মানববন্ধন     |     গাংনীতে গম চাষে ফলন বিপর্যয়ের আশঙ্কা। ব্লাষ্ট ভাইরাসে গম ক্ষেত আক্রান্ত     |     সাতক্ষীরায় মাটির ভিতর থেকে পাওয়া গেলো চরশো বছরের পুরানো মুর্তি     |     ঝিনাইদহে স্বেচ্ছাসেবক দলের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ     |     ঝিকরগাছা উপজেলা চেয়ারম্যানের মায়ের ইন্তেকাল : শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন     |     বিচারের দাবিতে জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ মেহেরপুরে কাষ্টমস কর্মকর্তা তপন চন্দ্র দে’র বিরুদ্ধে অর্থ বাণিজ্য ও হয়রানির অভিযোগ     |     পঞ্চগড়ে এসে শেষ হলো হানিফ বাংলাদেশীর ‘মার্চ ফর ডেমোক্রেসি’     |     বীরগঞ্জে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাশে পরিবেশের ছাড়পত্র ও অনুমদন বিহিন অবৈধ ইটভাটা চলছে ম্যনেজ করে, নিরব প্রশাসন     |