ঢাকা, শনিবার, ১৬ই জানুয়ারি ২০২১ ইং | ৩রা মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Breaking News

ঝিকরগাছায় দারিদ্র্যে হার না মানা নারী উদ্যোক্তা আনোয়ারার এবার চুঁইঝাল চাষে নতুনমাত্রা

আফজাল হোসেন চাঁদ : যশোরের ঝিকরগাছায় দারিদ্র্যে হার না মানা নারী উদ্যোক্তা আনোয়ারা বেগম এবার চুঁইঝাল চাষে এক নতুনমাত্রা এনে দিয়েছেন। তিনি বাণিজ্যিক ভাবে শুরু করেছেন চুঁইঝাল চাষ। ইতোমধ্যে তার সাফল্য দেখা দিয়েছে। এর আগে তিনি শুরু করেছিলেন বিষমুক্ত সবজির আবাদ। বিশেষ করে হাইব্রিড বেগুন চাষ। অতিসম্প্রতি আনোয়রা বেগম একটি চুঁইঝাল গাছ বিক্রি করেছেন সাড়ে ৬হাজার টাকা। এতে তিনি দারুণ উৎসাহবোধ করছেন বলে জানান।
চুঁইঝাল ঔষধি গুণেও তুলনাহীন আয়ুর্বেদীয় শাস্ত্রমতে, চুঁইঝাল বাত ব্যথার এক কার্যকর মহাষৌধ। চুঁইঝাল লতাজাতিয় বহুবর্ষজীবী মসলাজাতিয় উদ্ভিদ। ছায়াযুক্ত স্থান চুঁইঝাল চাষের অধিক উপযোগী। বড় ও মাঝারী গাছের নিচে চারা লাগালে তা ক্রমশই প্রাকৃতিক নিয়মে গাছ আকড়ে ধরে উপরে উঠতে থাকে। এ গাছের লতা জাতিয় কান্ডই তীব্র ঝাঝালো। যা মানুষ মাংশ রান্না উপাদেয় করতে ঝাল বা মরিচ হিসাবে ব্যবহার করে থাকে। সাধারণ তরিতরকারিতেও চুঁইঝাল ব্যবহারের রেওয়াজ দীর্ঘদিনের। ভোজনরশিকেরা মন্তব্য করে বলেন, ‘মাছের রাজার রুই-মাংশ স্বাদে চুঁই’। রসনাবিলাসে রন্ধনশিল্পে মাংশের স্বাদ আনতে চুঁইঝাল অতুলনীয়। আর তাই যশোর খুলনা অঞ্চলে হোটেল গুলোতে অতুলনীয় স্বাদে মাংশে ব্যবহৃত হচ্ছে চুঁইঝাল। ফলে ভোজনরশিকদের কাছে চুঁইঝাল মাংশের কদর বেড়েছে। দামও বেশ চড়া। প্রতি কেজি চুঁইঝাল ৫শ থেকে ১৫শ টাকা।
আনোয়ারা বেগম ঝিকরগাছার সবজিপল্লী বারবাকপুর গ্রামের আব্দুল খা এর স্ত্রী। আব্দুল খা পেশায় একজন সফল কৃষক না হওয়ায় তার সংসারের হাল ধরতে হয় স্ত্রী আনোয়ারা বেগমকে। নারী উদ্যোক্তা মধ্যবয়সী আনোয়ারা বেগম একজন কঠোর পরিশ্রমী ও মিতব্যয়ী। অভাবের সংসারে দিনরাত পরিশ্রমে এবার তার ভাগ্যাকাশে সম্ভাবনার আরও একটি পাখা মেলেছে এই মসলা জাতিয় উদ্ভিদ চুঁইঝাল। এর আগে তিনি বিষমুক্ত সবজির আবাদের পাশাপাশি ‘কেঁচো কম্পোষ্ট’ সার উৎপাদন ও উন্নতজাতের ক্যাম্বেল হাঁস ও ছাগল পালন করে সবাইকে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন। আনোয়ারা বেগমের উপার্জিত অর্থে দুই ছেলের লেখাপড়ার যাবতিয় খরচ জোগানোর পাশাপাশি সংসার নির্বাহ করতেন তিনি। তার হাড়ভাঙ্গা পরিশ্রমের ফসল ঘরে তুলেছেন তিনি। এখন তিনি ইঞ্জিনিয়ারিং শেষ করে চাকরী পাওয়া দুই সন্তানের গর্বিত জননী। সেদিনের কুঁড়েঘর থেকে এখন ছাদওয়ালা পাকাঘরের বাসিন্দা। তারই একান্ত প্রচেষ্টায় এখন বড় ছেলে সাদ্দাম হোসেন ব্যাপোডিল ইউনিভার্সিটি থেকে ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক্স (ইইই) ইঞ্জিনিয়ারিং বিষয়ে লেখাপড়া শেষ করে বর্তমানে এক্মি ল্যাবরেটরিজে সহকারী ইঞ্জিনিয়ারিং ও ছোট ছেলে শরিফুল ইসলাম যশোর পলিটেকনিক কলেজ থেকে টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং শেষ করে চাকরীরত।

You must be Logged in to post comment.

সুনামগঞ্জের ছাতক পৌর সভার নির্বাচনে কড়া নিরাপত্তার মধ্যদিয়ে শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ চলছে।     |     পঞ্চগড়ে পাঁচটি নদী ও একটি খালের পূনঃখনন প্রাণফিরে পেয়েছে নদী, সুরক্ষিত হবে জীব বৈচিত্র্য উপকৃত হবে এলাকাবাসী     |     নাটোরের নলডাঙ্গায় বিএনপি প্রার্থীর এজেন্টদের কেন্দ্রে থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ     |     বাগেরহাটে মোংলায় বিএনপির মেয়রসহ ১৩ কাউন্সিলর প্রার্থীর ভোট বর্জন     |     শেরপুর পৌর নির্বাচনে জাল ভোট দেয়ার সময় আটক ১     |     ছাতকে পৌরসভা নির্বাচন আজ কে হচ্ছেন পৌরসভার কর্ণাধার?     |     বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ ও প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত     |     মেহেরপুরের গাংনীতে সড়ক দুর্ঘটনায় যাত্রীবাহী পরিবহনের ৭ যাত্রী আহত     |     রংপু‌রে বিএন‌পির বি‌ক্ষোভ: পু‌লি‌শের বাঁধা     |     নীলফামারী ব্যাটালিয়ন (৫৬ বিজিবি) কর্তক পঞ্চগড়ে ভারতীয় ফন্সিডিল উদ্ধার      |