ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯শে জানুয়ারি ২০২১ ইং | ৬ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Breaking News

টাঙ্গাইলে ১১ আগস্ট ঐতিহাসিক জাহাজমারা দিবস

আঃ রশিদ তালুকদার, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি ॥ আজ ১১ আগস্ট ঐতিহাসিক জাহাজমারা দিবস। ১৯৭১ সালের এই দিনে মহান স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে এক গৌরবোজ্জ্বল ঘটনা। পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী মরণাস্ত্র, গোলাবারুদ, জ্বালানী ও রসদ বোঝাই ৬টি যুদ্ধ জাহাজ নারায়ণগঞ্জ থেকে ভূঞাপুর যমুনা নদী হয়ে উত্তরবঙ্গে যাচ্ছিল। মুক্তিযুদ্ধের সময় টাঙ্গাইলের যমুনা ধলেশ্বরী নদী পথে ভূঞাপুরের মাটিকাটা নামক স্থানে আসলে কাদেরিয়া বাহিনীর দুধর্ষ সাহসী চৌকশ কমান্ডার মেজর হাবিবুর রহমান বীরবিক্রমের নজরে আসে । মুক্তিযোদ্ধা ও এলাকার লোকজন নিয়ে রাতের আঁধারে জাহাজ দুটিতে হামলা করে। তার অত্যন্ত দূরদর্শিতা ও অল্প সংখ্যক সাহসী মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে জীবন বাজি রেখে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর অস্ত্র বোঝাই জাহাজ এস.ইউ ইঞ্জিনিয়ার্স এল.সি -৩, ও এসটি রাজন ধ্বংস করার মাধ্যমে হানাদারদের পরিকল্পনা নস্যাৎ করে দেন। জাহাজগুলো আক্রমণ ও দখল করে ১লক্ষ ২০ হাজার বাক্সে আনুমানিক ২১ কোটি টাকা মূল্যের অস্ত্রশস্ত্র ও গোলাবারুদ মুক্তিযোদ্ধারা নিয়ন্ত্রণে নেয়। বাংলাদেশের ইতিহাসের দীর্ঘ ৯ মাসে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী মুক্তিবাহিনীদের হাতে এত বড় ক্ষতি ও বিপর্যয়ের সম্মুখিন হয়নি। পরবর্তীতে যুদ্ধ জাহাজ ও অস্ত্রশস্ত্র উদ্ধার করার জন্য পাকিস্তানি কমান্ডেন্ট লে. জেনারেল আমির আব্দুল্লাহ খান নিয়াজি ও ব্রিগেডিয়ার কাদের খানের নেতৃত্বে ৪৭ ব্রিগেড, ৫১ কমান্ডো ব্রিগেড ও হানাদার বিমান বাহিনীর দুটি এফ-৮৬ স্যাবর জেট বিমান দ্বারা মুক্তিবাহিনী ও জনগণের উপর চতুরদিক থেকে আক্রমণ করে। কমান্ডার হাবিবুর রহমানের নেতৃত্বের কাছে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী পিছু হটতে বাধ্য হয়। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে এই যুদ্ধকে পট পরিবর্তনকারী (ঞঁৎহরহম চড়রহঃ) অধ্যায় হিসেবে গণ্য করা হয়। কমান্ডার হাবিবুর রহমানের অসম সাহসীকতার জন্য বাংলাদেশ সরকার তাকে “বীরবিক্রম” ও “জাহাজমারা হাবিব” উপাধিতে ভূষিত করেন।

কমান্ডার হাবিবের সহযোগি (অব. হিসাব রক্ষন কর্মকর্তা) আব্দুর রশিদ গেরিলা জানান, এই দিনটিকে স্মরণ রাখার জন্য আমরা বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করি। কিন্তু এ বছর বন্যা ও করোনা ভাইরাসের জন্য কোন কর্মসূচি নেয়া হয়নি।

উপজেলা সাবেক কমান্ডার আব্দুল মজিদ মিয়া জানান, জাহাজমারা স্মৃতিস্তম্ভটি রক্ষণাবেক্ষনের অভাবে অযত্নে-অবহেলায় মাদক সেবিদের আখড়ায় পরিনত হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও দয়িত্বপ্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোছা. নাসরীন পারভীন জানান, জাাহাজমারা দিবস সর্ম্পকে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধারা আমাকে কিছু জানাননি।

You must be Logged in to post comment.

দেশে করোনায় মৃত্যু ১৬ নতুন শনাক্ত ৬৯৭ জনের     |     ভারত থেকে ২০ লাখ টিকা আসছে বুধবার     |     সুন্দরগঞ্জে নব-নির্বাচিত মেয়রকে ফুলেল শুভেচ্ছা     |     আটোয়ারীতে তোড়িয়া ইউনিয়ন কৃষক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত সভাপতি রউফ, সম্পাদক কহিনুর     |     সাতক্ষীরায় আধানিবিড় চিংড়ি ফার্মের সমস্যা সমাধান কল্পে কর্মশালা     |     ঝিকরগাছায় শিক্ষার্থী ধর্ষণ : দেশীয় পিস্তলসহ ধর্ষক আটক     |     টাঙ্গাইলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হোস্টেলে লাইজু আক্তারের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার     |     বীরগঞ্জে চার্চ অব দ্যা ন্যাজ্যারীণ ইন্টারন্যাশনাল মিশনে কর্মী পূণঃমিলন     |     ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে হলুদে মেশানো হচ্ছিল চাউলের গুড়া ও রঙ, ব্যবসায়ীকে জরিমানা     |     শৈলকুপায় অগ্নিকান্ডে বৃদ্ধার মৃত্যু     |