ঢাকা, সোমবার, ২৬শে অক্টোবর ২০২০ ইং | ১১ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Breaking News

ঠাকুরগাঁওয়ে রাজনীতি স্থবির  –মো. আবদুল লতিফ

মোঃ মজিবর রহমান শেখ ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধি,,ঠাকুরগাঁও জেলার রাজনীতি স্থবির
সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) ঠাকুরগাঁও জেলার সাধারণ সম্পাদক মো. আবদুল লতিফ বলেছেন, প্রকৃত রাজনীতি বলতে যা বুঝায় সেই রাজনীতি ঠাকুরগাঁও জেলায় প্রায় অনুপস্থিত। জনগণের দুর্দশার কথা স্পষ্টভাবে কেউ বলছে না বা বললেও কেউ শুনছে না। বাংলাদেশ প্রতিদিনকে তিনি বলেন, করোনাকালে সরকার সাধারণ মানুষকে বাড়ি বাড়ি ত্রাণ পৌঁছে দেওয়ার কাজটি অবশ্য করেছে। যেমন ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সময়ের দাবি, ত্রাণ যাবে বাড়ি বাড়ি, সাধারণ মানুষও পেয়েছে সময়ের সঙ্গে ত্রাণ। সরকারের ত্রাণ বিতরণের কাজটি মূলত করেছে প্রশাসন। ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসন হাজার হাজার মানুষের ঘরে ত্রাণ পৌঁছে দিয়েছে। ঠাকুরগাঁও-১ আসনের এমপি রমেশ চন্দ্র সেন এই করোনার মধ্যেও  ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসকের সভাকক্ষে, সার্কিট হাউসে জরুরি সভাগুলো করেছেন। অন্য উপজেলাতেও গিয়েছেন তিনি। তিনি সস্ত্রীক করোনায় আক্রান্তও হয়েছেন। দলের ঠাকুরগাঁও জেলা সভাপতি সাদেক কুরাইশী নানা শরীরিক জটিলতায় ভুগছেন। করোনা সংক্রমণের আশঙ্কায় বাড়িতে থেকেই তিনি ঠাকুরগাঁও জেলা পরিষদের কাজ করছেন। তবে আওয়ামী লীগের অন্য অনেক নেতাকে ত্রাণ বিতরণে বা অন্য কাজে তৎপর ছিলেন বলে জানা যায়নি। ইউনিয়ন পর্যায়ে আওয়ামী লীগ দুস্থদের মাঝে ত্রাণ বিতরণে সক্রিয় ছিল। এই ত্রাণ বিতরণে অনিয়ম হয়েছে অনেক। অনেকে কয়েকবার করে ত্রাণ পেয়েছে, অনেকে একবারও পায়নি। প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া অনুদানের টাকা বেশিরভাগ ইউনিয়নে দলীয় নেতা-কর্মীদের মাঝে বিতরণের অভিযোগ রয়েছে। করোনাকালে বিএনপি বেশ কয়েকটি স্থানে দলের পক্ষে ত্রাণ বিতরণ করেছে। কয়েক স্থানে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফকরুল ইসলাম আলমগীরের পক্ষে ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে। তবে তাদের ত্রাণ বিতরণে সীমাবদ্ধতা ছিল। মামলা আর গ্রেফতারে জর্জরিত এই দলের নেতা-কর্মীরা এমনিতেই মৌন নীতি অবলম্বন করছেন। রাজনৈতিক কর্মসূচি সীমাবদ্ধ রয়েছে দলীয় কার্যালয়ের মধ্যে বা কার্যালয়ের সামনে সামান্য খোলা জায়গায় গত কয়েক বছরে ঠাকুরগাঁও জেলার রাস্তাঘাটের ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বহুতল ভবন নির্মিত হয়েছে। ব্রিজ হয়েছে, ঠাকুরগাঁও জেলা শহরে ডিভাইডার সহ রাস্তা প্রশস্ত করা হয়েছে। করোনার আগে বিভিন্ন সভায় আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা এই উন্নয়নের কথা বলেছেন। কিন্তু ঠাকুরগাঁও পৌরসভার রাস্তাঘাটের শোচনীয় অবস্থা, বিপর্যস্ত ড্রেনেজ সিস্টেম ইত্যাদির প্রসঙ্গ যখন উঠে তখন কারও কোনো উত্তর পাওয়া যায় না। ঠাকুরগাঁও পৌরসভার মেয়র মির্জা ফয়সল আমিন হলেন ঠাকুরগাঁও জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক। তিনি বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের ছোট ভাই। মেয়র পৌরসভার উন্নয়নে ব্যর্থ, নাকি তাকে কিছু করতে দেওয়া হচ্ছে না এই প্রশ্নের উত্তর পৌরবাসী জানে না।

You must be Logged in to post comment.

ঠাকুরগাঁওয়ে বালিয়াডাঙ্গীতে পূজা মন্ডলে বস্ত্র বিতরণ করেন- শ্রী দেবদাস ভট্টাচার্য (ডি ,আই,জি) ।     |     রূপসায় যুবলীগের প্রস্তুতি সভা     |     পলাশবাড়ীতে সড়ক দূর্ঘটনায় ভ্যানচালক নিহত     |     রাণীশংকৈলে দুর্গাপূজায় থানা পুলিশের ব্যাপক তৎপরতা      |     সুনামগঞ্জ সদরে বিস্ববিদ্যালয় স্থাপনের দাবিতে এলাকাবাসীর মানববন্ধনে সহমত প্রকাশ করেন এমপি পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ     |     সুনামগঞ্জ পৌরসভার ২৪টি পূজামন্ডপে পূষ্পাজ্ঞলী অর্পণ     |     আহছানিয়া মিশনের প্রোগ্রাম অফিসারকে বিদায় জানালেন কলারোয়া পৌরসভা     |     সন্ধ্যার পর স্কুল পড়ুয়া ছেলে-মেয়েদের রাস্তা ঘুরাফেরা বন্ধ করা হবে…. চন্দনপুরে বিট পুলিশিং সভায়-ওসি খায়রুল কবির     |     গাংনীতে প্রবাসীর স্ত্রীর সাথে রঙ্গলীলা করতে গিয়ে বেরসিক জনতার হাতে আটক। পরে পুলিশের গ্যাড়াকলে     |     গাংনীতে জননেত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়ে কলেজ ছাত্রলীগের আনন্দ র‌্যালি শেষে কর্মী সমাবেশ অনুষ্ঠিত     |