ঢাকা, শনিবার, ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০২১ ইং | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ঠাকুরগাঁও সদর হাসপাতালে জনবল সঙ্কট, করোনা পরীক্ষা করাতে না পেরে ফিরে যাচ্ছেন রোগীরা ‌!

মোঃ মজিবর রহমান শেখ, ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধি,ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রতিদিন শত শত রোগীর ভিড় বাড়ছে। এদের বেশিরভাগই করোনা উপসর্গ নিয়ে আসছেন। তবে পরীক্ষা করাতে না পেরে হতাশ হয়ে ফিরে যেতে হচ্ছে তাদের। সদর হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, হাসপাতালে দিনে ৬০ থেকে ৮০ জন রোগীর করোনা পরীক্ষা করা হচ্ছে। এতে প্রতিদিন প্রায় করোনা উপসর্গ নিয়ে আসা শতাধিক রোগীকে পরীক্ষা ছাড়াই ফিরে যেতে হচ্ছে। কর্তৃপক্ষ বলছে, জনবল সঙ্কটের কারণে ফিরিয়ে দিতে হচ্ছে রোগীদের।
বুধবার (৭ জুলাই) করোনা পরীক্ষা করাতে এসে ফিরে যেতে দেখা যায়, গ্রামের মামুন অর রশিদ কে । তিনি সাংবাদিকগণ কে বলেন, ‘বেলা ১০টায় এসেছি। আধাঘণ্টা দাঁড়িয়ে থেকে টোকেন নিয়েছি। এরপর ডাক্তার দেখিয়ে পরীক্ষা করাতে আসি। এখন তারা কাল আসতে বলছেন। বিষয়টি আমাদের জন্য অনেক ভোগান্তির।’ ব্যবসায়ী আব্দুল কাদের বলেন, ‘কাল এসে ফিরে গেছি। আজও ফিরে যেতে হচ্ছে। পরীক্ষা করতে আসতেই আমি অসুস্থ হয়ে যাচ্ছি। সম্ভব নয়। যাই হবে হোক। আমি আর পরীক্ষা করাতে আসব না।’
দেশের উত্তর সীমান্তের ঠাকুরগাঁও জেলায় প্রতিনিয়ত বাড়ছে করোনা রোগীর সংখ্যা। সেই মোতাবেক বাড়ছে করোনা পরীক্ষার চাপ। এ চাপ সামাল দিতে হিমশিম খেতে হচ্ছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে। হাসপাতাল সূত্র বলছে, এপ্রিল-মে মাসে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে থাকলেও জুন মাসে বেড়েছে ১৫ গুণ। ঠাকুরগাঁও জেলায় এ পর্যন্ত তিন হাজার ৮৬৫ জনের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে ১ জুন থেকে ৭   জুলাই পর্যন্ত শনাক্ত হয়েছে দুই হাজার ৪৭৭ জন। শুরু থেকে মৃত ৯৫ জনের মধ্যে জুন মাসেই মারা গেছেন ৪৭ জন। করোনায় সংক্রমণ ও মৃত্যু—এ দুই সূচকেই জুন মাস করোনা পরিস্থিতির বিগত ১৪ মাসকে ছাড়িয়ে গেছে। এই অবস্থায় সঠিকভাবে করোনা পরীক্ষা করা না গেলে পরিস্থিতি আরও বেগতিক হতে পারে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা।  ঠাকুরগাঁও জেলার বিশিষ্ট গবেষক ও প্রবীণ সাংবাদিক আব্দুল লতিফ বলেন, করোনা পরীক্ষা না করে এভাবে যদি রোগীদের ফেরত দেয়া হয়, তাহলে সাধারণ মানুষের মাঝে করোনা পরীক্ষার প্রতি অনীহা সৃষ্টি হবে। এমনটা হলে ঠাকুরগাঁও জেলার জন্য সামনে অনেক ভয়ঙ্কর একটি সময় অপেক্ষা করছে। এ বিষয়ে ঠাকুরগাঁও সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক নাজিরুল ইসলাম চপল সাংবাদিকগণকে বলেন, ঠাকুরগাঁও জেলায় দিন দিন করোনা রোগী বৃদ্ধি পাচ্ছে। কিন্তু সেই অনুপাতে জনবল বাড়ানো সম্ভব হয়নি। হাসপাতালে জনবল সঙ্কট রয়েছে। সে কারণে সঠিকভাবে করোনা পরীক্ষা করা যাচ্ছে না।’তিনি আরও বলেন, ‘রোগীদের পরীক্ষা ছাড়াই ফিরিয়ে দেয়ার বিষয়টিতে আমরাও চিন্তিত। কিন্তু এক্ষেত্রে আমরা সম্পূর্ণ নিরূপায়।’

You must be Logged in to post comment.

রাণীশংকৈলে বৈদ্যুতিক শক লেগে মা ও ছেলের মর্মান্তিক মৃত্যু     |     ঠাকুরগাঁওয়ে বৈদ্যুৎস্পৃষ্টে প্রাণ হারালেন মা-ছেলে     |     ঠাকুরগাঁওয়ে তিন স্কুলের ১৪ ছাত্রী করোনায় আক্রান্ত     |     রূপসায় নির্বাচনী মত বিনিময় সভা     |     সাতক্ষীরায় ১০ম শ্রেণির এক স্কুল ছাত্রীর রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার     |     সাতক্ষীরায় জলবায়ু ধর্মঘট ও তরুনদের প্রতীকি ফাঁসি কর্মসূচি পালিত     |     রানীশংকৈলে মধ্যযুগীয় কায়দায় যুবককে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্মম নির্যাতন, নির্যাতিতা মহিলা গ্রেফতার      |     বিয়ে করার কারণে মধ্যযুগীয় কায়দায় নির্যাতন, ভিডিও ভাইরাল, আটক-১     |     আটোয়ারীতে সাংবাদিকদের সাথে নব যোগদানকৃত কৃষি অফিসারের মতবিনিময়     |     ফুলবাড়ীতে ৯মাস থেকে উপবৃত্তির টাকা পায়নি প্রাথমিকের সাড়ে ১৭০০ শিক্ষার্থী।     |