ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৫ই জুন ২০২১ ইং | ১লা আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বাংলাবান্ধায় ধুলোবালিতে চলাচলে বিঘ্ন বাড়ছে নানান রোগব্যাধী

পঞ্চগড় প্রতিনিধি :- বাংলাবান্ধায় ধুলোবালির জন্য চলাচলে বিঘ্ন ঘটায় দিনদিন বাড়ছে নানান রোগব্যাধী।
দেশের উত্তরের প্রবেশদ্বার বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর, জিরো পয়েন্ট। প্রতিদিন শতশত পর্যটক দেখতে আসে এই জিরো পয়েন্ট বাংলাবান্ধায়। এছাড়াও আশপাশে কয়েকটি গ্রামগুলোতে বসবাস করছে হাজার হাজার জনগণ। কিন্তু বাংলাবান্ধা সীমান্ত ফাঁড়ি হতে স্থলবন্দর জিরো পয়েন্ট পর্যন্ত মহাসড়কের উভয় পাশের্^ বসানো হয়েছে পাথর ভাঙ্গা মেশিন। এসব মেশিন দিয়ে পাথর ভাঙ্গার ফলে ঘন কুয়াশার মত ধুলায় পরিনত হয় হাইওয়ে রাস্তাসহ উভয় পাশের্^র গ্রামগুলো। এতে চলাচলে চরম ভোগান্তিতে পড়তে হয় সাধারন পথচারীসহ এলাকাবাসীকে।
এ ভোগান্তি লাঘবের জন্য গত বছর স্থানীয় ব্যবসায়ীদের সহযোগীতায় ট্রলি দিয়ে পানি সরবরাহ করে ধুলোবালি নিবারনের চেষ্টা করেছিলেন বাংলাবান্ধা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান কুদরত-ই খুদা মিলন। ইউপি চেয়ারম্যানের এহেন মহৎ কাজে সহযোগিতায় পাশে কাউকে না পাওয়ায় গত শীত মৌসুমের পর থেকেই বন্ধ হয়ে যায় পানি সেচ ব্যবস্থা। পানি সেচ ব্যবস্থা বন্ধ করে দেওয়ায় এলাকাবাসি ও বন্দরে প্রবেশের রাস্তাটুকু চলাচলে স্বাস্থ্য ঝুকির মুখে পড়েছে জনগণ। বিষয়টি নিয়ে বন্দর কর্তৃপক্ষের নিকট জানতে চাইলে তারা প্রশাসনের উপর দায় এড়িয়ে যায়। এভাবে চলতে থাকলে এলাকায় বসবাসরত লোকজনসহ অন্যরাও বিভিন্ন জটিল ও কঠিন রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশংকা করছে এলাকাবাসি।
এলাকাবাসী জানান, বাংলাবান্ধা এলাকায় শিশু ও বয়স্কদের এ্যাজমা, এলার্জি, নিউমোনিয়া ও ফুসফুসের রোগ বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ পাথর ক্রাশিং মেশিন বন্ধ করা না হলে এলাকা বাসি বিভিন্ন জটিল ও কঠিন রোগে আক্রান্ত হওয়ার স্বম্ভাবনা রয়েছে।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরএমও ডা. রোকনুজ্জামান জানান, বাংলাবান্ধা এলাকায় ধুলোবালির জন্য জিরো পয়েন্ট পর্যন্ত যাওয়া খুব কঠিন। এ এলাকায় শিশু ও বয়স্কদের এ্যাজমা এলার্জি নিউমোনিয় ও ফুসফুস জনিত জটিল রোগ বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ ধুলোবালি থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য নিয়মিত সকাল-বিকাল পানি ছিটিয়ে ধুলোবালি থেকে এলাকাবাসিকে রক্ষা করতে হবে। তা না হলে শিশু ও বয়স্কদের জটিল ও কঠিন রোগে আক্রান্ত হয়ে অকালে মৃত্যুবরন করবে বলে আশংকা করেছেন।
বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর লোড-আনলোড শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মোঃ ইদ্রিশ আলী জানান, এ ধুলোবালির জন্যে শ্রমিকদের কাজ করা খুবই ঝুকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। এ ঝুকির মধ্যে কাজ করতে থাকলে আমরা বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে বিছানায় পড়ে থাকতে হবে। আমাদের সংসার চালানো খুবই কষ্টকর হয়ে পড়বে। আমরা পানি সরবরাহ করে ধুলোবালি থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য প্রশাসনের নিকট জোড় দাবি জানাচ্ছি।
এ বিষয়ে বাংলাবান্ধা ইউপি চেয়ারম্যন কুদরত-ই খুদা মিলন জানান, গত বছর নিজ উদ্যোগে বাংলাবান্ধা বিওপি থেকে জিরো পয়েন্ট পর্যন্ত সকাল-বিকাল দুইবার পনি সরবরাহ করার ব্যবস্থা করেছিলাম। এতে ব্যবসায়ীরা খরচ বহন করার কথা ছিল কিন্তু কোন ব্যবসায়ীই আমাকে সহযোগীতা করেন নাই। সহযোগীতা না করার কারনে এ বছর রাস্তায় পানি সরবরাহ করা সম্ভব হচ্ছে না। এভাবে ধুলোবালি চলতে থাকলে এলাকার পরিবেশর বিরুপ প্রভাবসহ এলাকায় নানান রোগে দেখা দিতে পারে।
এ নিয়ে বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরের সহকারি রাজস্ব কর্মকর্তা আল-আমিন জানান, ধুলোবালির কারনে আমাদের বন্দরে কাজ কর্ম করা খুবই কঠিন হয়ে পড়েছে। পানি সরবরাহ করে ধুরোবালি থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য প্রশাসনের নিকট জোর দাবি জানাচ্ছি।
এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোহাগ চন্দ্র সাহা বলেন, আমরা ব্যবসায়ীদেরকে বারবার বলেছি তারা যেন পানি সেচ দিয়ে পাথর ক্রাসিং করেন। তাদের সঙ্গে আলোচনা করে কিভাবে দ্রত সমস্যা সমাধান করা যায় সে বিষয়ে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। যদি তারা সহযোগিতায় এগিয়ে না আসে তাহলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

You must be Logged in to post comment.

ঠাকুরগাঁওয়ে করোনা সংক্রমণ–১ বছরে শনাক্ত ১৯৬৪, মৃত্যু ছুঁয়েছে ৫০  ?     |     ঝিকরগাছায় বেকার মহিলাদের আত্ম কর্মসংস্থানের জন্য হস্তশিল্পী বিষয়ক প্রশিক্ষণের পরিসমাপ্তি     |     রাণীশংকৈলে গাছসহ গাঁজা উদ্ধার, আটক ১     |     ঝিকরগাছায় বেকার মহিলাদের আত্ম কর্মসংস্থানের জন্য হস্তশিল্পী বিষয়ক প্রশিক্ষণের পরিসমাপ্তি     |     অবৈধপথে ভারত থেকে আসার সময় সাতক্ষীরায় ৬ জন আটক     |     বাগাতিপাড়ায় করোনাকালীন সময় বেড়েছে শিশুশ্রম     |     ঠাকুরগাঁওয়ে গাঁজার গাছসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার     |     ঢাকায় গৃহকর্মী তেঁতুলিয়ার শিশু সুমিকে নির্যাতন তেঁতুলিয়ায় ফেরৎ মুমূর্ষ অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন     |     মেহেরপুরে কোলড্রিংস ভেবে কীটনাশক পানে শিশুর মৃত্যু     |     আটোয়ারীতে সবুজ আন্দোলনের আয়োজনে বৃক্ষ রোপন কর্মসুচি উদ্বোধন     |