ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৯শে অক্টোবর ২০২০ ইং | ১৪ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Breaking News

ভূঞাপুরে যমুনা নদীতে ভাসমান নৌকায় লাখ লাখ টাকার জুয়াড় আসর

আঃ রশিদ তালুকদার, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি: টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে অভিনব কায়দায় যমুনা নদীতে নৌকা ভাসিয়ে তাতে জুয়ার আসর পরিচালনা করা হচ্ছে। জুয়াড়িরা ছোট ছোট খেয়া নৌকাযোগে ভাসমান বড় নৌকায় গিয়ে নামছে। আর তাতেই চলে দিনরাত ভর জুয়া খেলা।
সরেজমিনে জানা যায়, ভূঞাপুর উপজেলার কুঠিবয়ড়া হতে গাবসারার রামপুর পর্যন্ত বিভিন্ন পয়েন্টে জুয়াড়িদের নিরাপদ স্থানে অভিনব কায়দায় ভাসমান জুয়া খেলা চলছে। শুধু জুয়াই নয় সাথে মাদক সেবন ও বিক্রি করা হয়। ছোট ছোট ইঞ্জিন চালিত নৌকাযোগে জুয়াড়িরা মধ্যে নদীতে যাচ্ছে। সেখানে আগে থেকে থাকা জুয়ার নৌকা অপেক্ষা করছে তাদের নিতে। এরপর নিরাপদ স্থানে নৌকা ভাসিয়ে দিয়ে তাতেই চলে লাখ লাখ টাকার জুয়া খেলা। আর এই খেলা নজরদারী করতে জুয়াড়ি বোর্ড পরিচালনাকারীরা তাদের নিজস্ব লোকবল গোবিন্দাসী ঘাট থেকে গোপালপুর উপজেলার নলীন পর্যন্ত বিভিন্ন পয়েন্টে নিয়োজিত রেখেছে খোঁজ খবর রাখার জন্য। দূরের ওই বজরা বা ভাসমান নৌকাটি জুয়া খেলার জন্যই তৈরি করেছেন স্থানীয় উপজেলার কুঠিবয়ড়া গ্রামের মামুন। আর তাতে জুয়ার বোর্ড পরিচালনা করছে দেশ খ্যাত জুয়াড়ি ফজল মন্ডল।
জানা গেছে, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী সারা দেশেই যখন জুয়া ক্যাসিনো বন্ধে কঠোর অবস্থানে সেখানে টাঙ্গাইলের ভুঞাপুরে যমুনা নদীর বিভিন্ন অংশে অবাধে চলছে বড় ধরণের জুয়ার আসর। অনেকটা ঘটা করেই দিনের পর দিন বজরা (ভাসমান) নৌকায় চালানো হচ্ছে এ অবৈধ কার্যক্রম। ঢাকাসহ সারাদেশের জুয়াড়ীরা নিরাপদ আস্তানা ভেবে এই যমুনা নদীতে ভাসমান জুয়ার আসরে আসছে। কেবল জুয়া নয় সেখানে অবাদে চলছে মাদকের সেবন ও ব্যবসা।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয়রা জানান, আয়োজকরা প্রভাবশালী। সেইসাথে প্রশাসন ও ক্ষমতাবানদের সাথে তাদের সখ্যতা থাকায় তাদের ভয়ে মুখ খুলতে সাহস পাননা তারা। দিনে দুপুরে যমুনা নদীতে ভাসমান ওই নৌকায় বড় ধরনের জুয়াড় আসর বসছে প্রতিনিয়ত।

এর আগে চলতি বছরের শুরুতে ভূঞাপুরের গোবিন্দাসী যমুনা ঘাট সংলগ্ন কাঁশবনে জুয়াড় আসরের সংবাদ সংগ্রহে গেলে হামলার শিকার হতে হয় সাংবাদিকদের। পরে মামলা হলে দীর্ঘ আন্দোলনে পর গ্রেফতার হয় জুয়াড় মূল হোতা ফজল মন্ডলসহ আটজন। এতে বেসরকারি টেলিভিশন ডিবিসি নিউজের জেলা প্রতিনিধি সোহেল তালুকদার বাদী হয়ে মামলা হওয়ার পর থানা পুলিশ ফজল মন্ডলকে প্রধান করে ১৮ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ৪০ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জসিট জমা দিয়েছে।

গোবিন্দাসী নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আব্দুল মান্নান জানান, যমুনা নদীর বঙ্গবন্ধু সেতু হতে গোপালপুরের নলীন পর্যন্ত নৌপুলিশ তাদের দায়িত্ব পালন করে। এরমধ্যে কোথাও নদীতে ভাসমান নৌকায় জুয়া খেলার কোন খবর নেই। তবে থানার অধীন বিভিন্ন নদীর শাখা-প্রশাখা বা খালগুলোতে হয়তবা জুয়া খেলতে পারে।

ভূঞাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. রাশিদুল ইসলাম জানান, যমুনা নদীতে ভাসমান নৌকায় জুয়া খেলার কোন তথ্য নেই। তবে সিরাজগঞ্জের সীমানায় জুয়া খেলার খবর পাওয়ার পর সেখানকার থানা পুলিশের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছিল।

You must be Logged in to post comment.

গাংনীতে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে গৃহকর্তা আব্দুল বাকীর মৃত্যু     |     ঠাকুরগাঁওয়ে ১৫ হাজার পিচ ইয়াবা সহ আটক-১, জেলা পুলিশের সংবাদ সম্মেলন ।     |     সাতক্ষীরায় ১৮ পিস স্বর্ণের বারসহ চোরকারবারী আটক     |     মেহেরপুরে বিভাগীয় পুলিশ কর্মকর্তা ডিআইজির আগমন। রিজার্ভ অফিস ও পুলিশ অফিসের বার্ষিক পরিদর্শন     |     পঞ্চগড়ে বোদায় বিয়ের কথা বলে ডেকে নিয়ে মাইক্রোবাসে গৃহবধূকে রাতভর ধর্ষণ     |     তেঁতুলিয়ায় অভিনব কায়দায় চুরি অতঃপর ১৫ দিন পর মালামাল উদ্ধারসহ ৪ জন আটক     |     ঝিকরগাছা উপজেলার রাজস্ব সভা অনুষ্ঠিত     |     পার্বতীপুরে জাতীয়তাবাদী যুবদলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত     |     রূপসায় এমপি সালাম মূর্শেদী বাংলাদেশ আজ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়নের মহাসড়কে পা রেখেছে     |     শৈলকুপায় মধু সংগ্রহ করতে গিয়ে গাছ থেকে পড়ে যুবকের মৃত্যু     |