ঢাকা, রবিবার, ২৫শে অক্টোবর ২০২০ ইং | ১০ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
Breaking News

সুন্দরগঞ্জের সেই সমালোচিত বিতর্কিত পিআইও’র বিরুদ্ধে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের তদন্ত শুরু

শফিকুল ইসলাম অবুঝ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি: অনিয়ম-দুর্নীতিসহ নানা কর্মকাণ্ডে বিকর্তিক ও আলোচিত গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের বদলিকৃত প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) নুরুন্নবী সরকারের বিরুদ্ধে এবার তদন্ত শুরু করেছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তর।

সোমবার (১০ আগষ্ট) বিকেলে তদন্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেন তদন্ত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের পরিচালক (মূল্যায়ন ও পরীবিক্ষণ) মো. আনিছুর রহমান। এরআগে, রবিবার (৯ আগষ্ট) দুপুরে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয়ে স্বশরীরে উপস্থিত হয়ে তদন্ত কার্যক্রম শুরু করেন আনিছুর রহমান। তদন্তের সময় অভিযুক্ত পিআইও নুরুন্নবী সরকার ও জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা ইদ্রীস আলী উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া তদন্তকালে সুন্দরগঞ্জ উপজেলা হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাককে ডেকে নিয়ে তাঁর লিখিত বক্তব্য নেয় তদন্তকারী কর্মকর্তা।

তদন্ত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের পরিচালক মো. আনিছুর রহমান মুঠোফোনে বলেন, ‘ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালকের নির্দেশে পিআইও নুরুন্নবী সরকারের বিরুদ্ধে বছরের ৩৬৫ দিন প্রকল্প এলাকা পরিদর্শনের নামে অস্বাভাবিক ভ্রমন ভাতা উত্তোলনের বিষয়ে সরেজমিনে তদন্তে আসেন তিনি। দীর্ঘসময় তদন্তকালে সকল প্রকার বিল-ভাউচার ও নথিপত্র যাচাই করাসহ অভিযুক্ত পিআইও নুরুন্নবী এবং হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তার কাছে লিখিত বক্তব্যে জমা নেয়া হয়। এছাড়া অস্বাভাবিক ও ভূয়া ভ্রমণ বিল অনুমোদনে জেলা ত্রাণ ও পূর্নবাসন কর্মকর্তা ইদ্রিস আলীর বক্তব্যে লিপিবদ্ধ করা হয়। তদন্তের তথ্য-প্রমাণসহ সার্বিক বিষয় পর্যালোচনা করে দ্রুতই এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন মহাপরিচালক বরাবরে দাখিল করা হবে’।
এরআগে, গত বছরের সেপ্টেম্বর ও অক্টোবর মাসে পিআইও নুরুন্নবী সরকারের বিরুদ্ধে বছরের ৩৬৫ দিন ভ্রমণ বিল উত্তোলনসহ নানা অনিয়ম ও দুর্নীতি কর্মকাণ্ডের একাধিক সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত ও ভাইরাল হয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক সহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে। এ নিয়ে জেলা প্রশাসকের নির্দেশে দুই দফা তদন্ত করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক রাজস্ব (এডিসি) আলমগীর কবির সৈকত। তদন্তে নুরুন্নবী সরকারের বিরুদ্ধে বছরের ৩৬৫ দিন ভ্রমণ বিল উত্তোলনসহ নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগের প্রমাণ পায় তদন্ত কমিটি।

পরে অভিযুক্ত পিআইও নুরুন্নবীর বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণসহ তাকে বরখাস্তের সুপারিশ করে সংশ্লিষ্ট অধিদপ্তরের প্রতিবেদন পাঠায় জেলা প্রশাসক আব্দুল মতিন। কিন্তু দীর্ঘ এক বছরেরও অদৃশ্য কারণে অভিযুক্ত পিআইও’র বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থাই নেয়নি সংশ্লিষ্ট অধিদপ্তর। বর্তমানে অভিযুক্ত পিআইও নুরুন্নবী সরকার রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলায় কর্মরত। ২০১৫ সালে সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় যোগদানের পর থেকে নানা অনিয়ম-দুর্নীতি কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়েন নুরুন্নবী সরকার। একাধিক হামলার শিকারসহ অনিয়ম-দুর্নীতির ঘটনায় তার বিরুদ্ধে দুদকসহ পাঁচটি মামলা দায়ের হয়।
এদিকে, গণমাধ্যমে একের পর এক অনিয়ম-দুর্নীতির সচিত্র তথ্য-প্রমাণ প্রকাশের পর নিজেকে বাঁচতে মরিয়া হয়ে উঠেন নুরুন্নবী সরকার। ক্ষমতার দাপটে ভাড়াড়ে সন্ত্রাসী দিয়ে নিজের পদ আঁকড়ে থাকতে প্রভাব বিস্তার করেন তিনি। এক পর্যায়ে গত বছরের ১৬ সেপ্টেম্বর কালের কন্ঠ ও যমুনা টেলিভিশনসহ স্থানীয় এবং জাতীয় পর্যায়ের ১২ গণমাধ্যমকর্মীর বিরুদ্ধে রংপুরের আদালতে পৃথক দুটি মানহানীর মামলা করেন তিনি। যদিও আদালত মামলাটি তদন্ত করে পুলিশ বুরো অব ইনভেস্টিগেশনকে (পিবিআই) তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেয়। কিন্তু প্রায় এক বছরেও সেই প্রতিবেদন আদালতে দাখিল করেনি পিবিআই।

You must be Logged in to post comment.

পলাশবাড়ীতে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে নানার মৃত্যু, দুই নাতনি আহত     |     সুন্দরবন উপকূলে টানা বর্ষণে পানিবন্দি অর্ধ-লক্ষাধিক মানুষ  ভেসে গেছে প্রায় ১০ হাজার মৎস্য ঘের     |     আটোয়ারীতে ভ্রাম্যমান আদালতে মটরসাইকেল চালকের ২০ হাজার টাকা জরিমানা     |     সিংড়ায় নতুন জীবন পেল ৪টি বক পাখি     |     গোমস্তাপুরে বেতনের অভাবে মানবেতর জীবন যাপন করছেন ৪শতাধিক কেজি শিক্ষক     |     সুনামগঞ্জের ছাতক ডাকাতি কারর চেষ্টা সমবেত সময় মালামাম সহ গ্রেফতার ৭ ডাকাত ৭।     |     যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছে পার্বতীপুরের নির্যাতিত গৃহবধু সালমা বানু মামলার অগৃগতি নেই     |     গাইবান্ধায় বৈরি আবহাওয়ায় আমন ধানসহ শীতকালীন সবজির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা      |     কলারোয়ায় সাংবাদিকদের সাথে নবাগত ওসি’র মতবিনিময়     |     কলারোয়ার মানিকনগর গ্রামবাসীকে হয়রানীর প্রতিবাদে গ্রামবাসীর প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন     |