ঢাকা, শুক্রবার, ১৯শে এপ্রিল ২০২৪ ইং | ৬ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গাংনীতে গমের বাম্পার ফলন। উপজেলায় লক্ষ্যমাত্রার চেয়েও বেশী আবাদ

আমিরুল ইসলাম অল্ডাম মেহেরপুর জেলা প্রতিনিধি : মেহেরপুরের গাংনীতে অন্য বছরগুলোর তুলনায় এবার গম চাষে বাম্পার ফলন হচ্ছে বলে জানিয়েছেন কৃষকরা। গাংনীতে এবছর গম চাষ বেড়েছে। অথচ আগের বছর গুলোতে গাংনীতে গম ক্ষেতে বøাস্ট রোগের আক্রমণের কারণে কৃষি অফিস গম চাষের ব্যাপারে চাষিদের নিরুৎসাহিত করেছিল।কৃষি অফিসের ভুল পরামর্শে গমের চাষের পরিবর্তে অনেকে বেশীর ভাগ পরিমাণ জমিতে চাষ হয়েছিল মসুরী ও তামাক।তবে এবছর উপজেলার সব মাঠে প্রচুর গম চাষ হয়েছে।
কৃষি বিভাগের কর্মকর্তারা নিরুৎসাহিত করার পরও ২০২২ ইং বছরে উপজেলায় ৬ হাজার ৩৫০উপ হেক্টর জমিতে গম চাষ হয়েছিল।আগের বছরের মতো গমক্ষেতে বøাস্ট রোগ হতে পারে বলে আশঙ্কা ছিল। গত বছর এ উপজেলায় ৬ হাজার ৫৭০ হেক্টর জমিতে গম চাষ হয়েছিল। গত মৌসুমে ঝুঁকি নিয়েও যারা গম চাষ করেছিল তারা যে আশা করে ছিলো তার অধিক বেশি ফলন হয়েছিল।
চলতি মৌসুমে উপজেলায় ৭ হাজার ৬৫ হেক্টর জমিতে গম চাষ হয়েছে। গম চাষে বাম্পার ফলন দেখা গেছে। বিধা প্রতি ১৪ মন থেকে ১৬ মন গমের ফলন হয়েছে। জেলায় গম চাষের লক্ষমাত্রা ধরা ছিল ১০ হাজার হেক্টর কিন্তু চাষ হয়েছে ১৩ হাজার ৬৫ হেক্টর জমিতে।
গাংনী উপজেলা কৃষি অফিসার ইমরান হোসেন জানান, এ বছর রবি মৌসুমে জেলায় ৭ হাজার ৬৫ হেক্টর জমিতে গমের চাষ হয়েছে।
গাংনী উপজেলার চেংগাড়া গ্রামের কৃষক আশরাফুল ইসলাম জানান, গত বছর আমি ৬৬ শতক (২ বিঘা)জমিতে গম চাষ করেছিলাম তাতে ফলন হয়েছে ৩৬ মণ। আমি এ বছরে একই জমিতে গম চাষ করেছি । দুই একদিনের মধ্যে গম কর্তন করবো।আশা করি আগের চেয়ে এবছর ফলন ভাল হবে।
একই কথা জানালেন রাইপুর গ্রামের রবিউল ইসলাম । গত বছর তিনি ৫০ শতক জমিতে গম চাষ করে ছিলেন তাতে ফলন পেয়েছেন ২১ মণ,তিনি এবছর একই জমিতে গম চাষ করেছেন।আবহাওয়া ভাল হওয়ার কারনে এবছর বাম্পার ফলনের আশা করছেন তিনি। হিন্দা গ্রামের আব্দুল গফুর জানান, তিনি ৫০ শতক জমিতে এবছর গম চাষ করেছেন ।গমের ফলন ভাল হবে।

গাংনী উপজেলার ভোমরদহ গ্রামের মেম্বর আবুবকর জানান, উচ্চ ফলনশীল জাতের বারি গম-৩৩ চাষ করেছেন।অনেকেই বারি-৩০ ও বারি-৩১ ও ৩২ জাতের গম চাষ করেছেন। গমচাষের শুরু থেকেই বøাস্ট নামের ছত্রাক জনিত রোগটির বিষয়ে এবার যথেষ্ট সজাগ আছেন তারা। তাই সময়মত জমির পরিচর্যা করাসহ বøাস্ট ছত্রাক থেকে বাঁচতে বালাইনাশক স্প্রে করা হয়েছে বলে জানান তারা।
কৃষি বিভাগের পরামর্শ উপেক্ষা করে গত বছর যেসব কৃষক গম চাষ করেছিল,কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে তাদের সময় মত গমক্ষেতে বিভিন্ন ধরনের ছত্রাকনাশক ওষুধ স্প্রে করায় ফলন ভাল হয়েছিল।তাই জেলার গমক্ষেত গুলোতে এবার ছত্রাকের প্রকোপ দেখা যায়নি। জনশ্রæতি রয়েছে, চলতি মৌসুমে শীতের প্রকোপ বেশী তাই বেশী শীতে গম ক্ষেত ভাল হয়েছে। তবে গাংনী উপজেলায় গম ক্ষেতে বাম্পার ফলন হচ্ছে বলে জানা গেছে।

You must be Logged in to post comment.

প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনী দায়সারা আয়োজনে খামারিদের দুর্ভোগ ৭ ঘন্টায় পশুর খাবার দেয়া হয়েছে মাত্র এক আটি ঘাস ও ১ কেজি ভূসি প্রদর্শনী শেষে আগে ৮০০ থেকে ১ হাজার টাকা দেয়া হলেও এবার দেয়া হয়েছে মাত্র ১৫০ থেকে ৩৫০ টাকা।     |     বিরল উপজেলা সিএসও এর দ্বি-মাসিক সভা অনুষ্ঠিত     |     বিরলে দিনব্যাপী প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনীর উদ্বোধন অনুষ্ঠিত     |     টাঙ্গাইলে সেরা ওসি নির্বাচিত হলেন আহসান উল্লাহ্, পেলেন শ্রেষ্ঠ সম্মাননা পুরস্কার      |     বিএনপি নেতা সোহেলের নিঃশর্ত মুক্তি দাবিতে রংপুরে  মানববন্ধন ও সমাবেশ      |     বীরগঞ্জে ইউএনওকে বয়কট করলেন ইউপি চেয়ারম্যানরা     |     আটোয়ারীতে দিনব্যাপি প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত     |     অসম্প্রদায়িক বাংলাদেশ তথা সোনার বাংলা গড়ার প্রশ্নে যে কোন অপশক্তিকে প্রতিহত করা হবে। মুজিবনগর দিবসে এই হোক অঙ্গীকার -কাজী জাফর উল্লাহ     |     বগুড়ার শেরপুরে প্রানিসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনীর উদ্বোধন     |     আটোয়ারী উপজেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত     |