ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭শে ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ইং | ১৫ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

গাংনীতে পেঁয়াজ চাষীদের প্রণোদনা কর্মসূচিতে বাঁশ দিলেন কৃষি অফিস

আমিরুল ইসলাম অল্ডাম  মেহেরপুর জেলা প্রতিনিধি : মেহেরপুরের গাংনীতে ২০২২-২৩ অর্থবছর প্রণোদনা কর্মসূচীর আওতায় গ্রীষ্মকালীন পেঁয়াজ উৎপাদন বৃদ্ধিও লক্ষ্যে কৃসকদের মাঝে বিনামূল্যে রাসায়নিক সার ও বীজ বিতরণ অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আয়োজনে আজ সোমবার সকালে উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে পেঁয়াজ চাষীদের বীজ ও সার বিতরণ করা হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসার এর প্রতিনিধি উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভ’মি) নাদিও হোসেন শামীম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, গাংনী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এম এ খালেক। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, গাংনী উপজেলা কৃষি অফিসার ইমরান হোসেন ও উপজেলা কৃষি সম্প্রসারন অফিসার আব্দুর রউফ প্রমুখ।
গ্রীষ্মকালীন পেঁয়াজ চাষীদের প্রদর্শনী প্লটের প্রণোদনা কর্মসূচীতে বাঁশ দেয়া হয়েছে। উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের ১২০ জন পেঁয়াজ (জাত ঃরেড এন্ড ফিফটি-৩) চাষীদের মাঝে পেঁয়াজের বীজ,রাসায়নিক সার,ছত্রাকনাশক, বিকাশের মাধ্যমে নগদ ২ হাজার টাকা, পলিথিন,বাঁশ, দড়ি সহ নানা উপকরণ বিতরণ করা হয়েছে।
গাংনী উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যানদের সহযোগিতায় প্রকৃত চাষীদের বাছাই করে পেঁয়াজ চাষীর নাম তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। গ্রীষ্মকালীন পেঁয়াজ চাষে চাষীদের উদ্বুদ্ধ করতে সরকারের যুগান্তকারী প্রণোদনা কর্মসুচি। প্রত্যেক চাষীকে পেঁয়াজ চাষে মাচা করার জন্য ৪ টি করে বাঁশ, পেঁয়াজের বীজ ১ কেজি, রাসায়নিক সার ডিএপি ২০কেজি,এমওপি-২০ কেজি,পলিথিন , ছত্রাকনাশক, দড়ি ইত্যাদি উপকরণ বিতরণ করা হয়েছে।
এনিয়ে উপজেলা কৃষি অফিসার ইমরান হোসেনের নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান,গ্রী গ্রীষ্মকালীন ঁেপয়াজের প্রণোদনা জন্য গাংনী উপজেলায় মোট বরাদ্দের পরিমান ১০ লাখ ৮০ হাজার টাকা। তিনি আরও জানান,বিগত বছরে আমরা বাঁশ সরবরাহ না কওে বাঁশ ক্রয় বাদদবদ নগদ টাকা দিয়েছিলাম। কিন্তু এ বছরে আমরা সরকারী নির্দশনা অনুযায়ী প্রতি চাষীকে ৪ পিচ করে বাঁশ সরবরাহ করছি। যার দাম বাঁশ ক্রয়, লেবার খরচ, বহন খরচ দিয়ে মোট ৬ শ’ ৮০ টাকা করে পড়েছে। অর্থ্যাৎ একটি বাঁশের দাম পড়েছে ১৭০ টাকা করে। একইভাবে ৪৮০ টি বাঁশ ক্রয় করতে লেগেছে ৮১ হাজার ৬ শ’ টাকা। কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, বাঁশগুলো গাংনী উপজেলার সিন্দুরকৌটা গ্রামের শরিফুল ইসলামের নিকট থেকে ক্রয় করা হয়েছে। তবে কত টাকা কওে ক্রয় করা হয়েছে তা এড়িয়ে যান কৃষি অফিসার।
এব্যাপারে পেঁয়াজ চাষী রামনগর গ্রামের চাষী জিয়া বলেন, চাষীদের মাঝে যে বাঁশ বিতরণ করা হয়েছে সেগুলো খুবই নি¤œমানের। মাথামরা এবং ছোট চিকন সাইজের বাঁশ সরবরাহ করা হয়েছে যার দাম গ্রামে ৫০/৬০ টাকা পিচ।এই বাঁশ উপজেলা চত্বর থেকে গ্রামে ভ্যান বা অটো ভাড়া করে নিতে হলে দ্বিগুন ভাড়া বহন করতে হচ্ছে। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, অনেক চাষী বাঁশ না নিয়ে গাংনীতেই কম দামে বিক্রি করে দিয়েছে।

You must be Logged in to post comment.

রংপুরে বসতভিটা ও আবাদী জমি থেকে উচ্ছেদ পাঁয়তারা বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভ     |     মেহেরপুরে ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেফতার     |     আটোয়ারীতে জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস পালিত     |     গাংনীতে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত     |     বোদায় জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস পালন উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা     |     গাংনীতে জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস পালন উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা     |     মেহেরপুরে জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস পালিত     |     মাদারীপুরে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মদ্য পানের ভিডিও ভাইরাল, দুই শিক্ষক বরখাস্ত     |     টাঙ্গাইলে লাঠিয়াল বাহিনীর ভয়ে নিরাপত্তা হীনতায় পাঁচটিকড়ির কয়েকটি পরিবার     |     ছয় বছর ধরে শিকলবন্দী মিলনের জীবন, নিরুপায় পরিবার     |