ঢাকা, বুধবার, ২৮শে সেপ্টেম্বর ২০২২ ইং | ১৩ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

গাংনীতে হাঙ্গার প্রজেক্টের কো-অর্ডিনেটর খোরশেদ আলমের স্বেচ্ছাচারিতা ও বিনা কারনে ইউসি’দের চাকরিচ্যুত করার প্রতিবাদে সাংবাদিক সম্মেলন

আমিরুল ইসলাম অল্ডাম মেহেরপুর জেলা প্রতিনিধি : গাংনীতে দি হাঙ্গার প্রজেক্ট যশোর অঞ্চলের কো-অর্ডিনেটর খোরশেদ আলমের স্বেচ্ছাচারিতা .অসদাচরণ ও বিনা কারনে ৪ জন ইউসিকে চাকরিচ্যুত করার প্রতিবাদে সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।আজ সোমবার দুপুরে চাকরিচ্যুত ইউসি গোলাম আম্বিয়ার উপজেলার চিৎলার নিজ বাসভবনে সাংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।
সংবাদ সম্মেলনে গোলাম আম্বিয়া লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন। লিখিত সূত্রে গোলাম আম্বিয়া জানান,,২০০৫ সালে দি হাঙ্গার প্রজেক্ট চালিত ৫৫৭ তম উজ্জীবক প্রশিক্ষণে অংশ গ্রহণের মধ্য দিয়ে একজন সফল উজ্জীবক হিসাবে স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে সামাজিক পরিবর্তনের লক্ষ্যে কাজ করে আসছি। ২০০৯ সালে স্বেচ্ছাব্রতী প্রশিক্ষক প্রশিক্ষণের মাধ্যমে (ভিটিআর) ২০১২ সাল পর্যন্ত দি হাঙ্গার প্রজেক্টে কাজ করে আসছি। ২০১২ সালে দি হাঙ্গার প্রজেক্ট গাংনী উপজেলায় ৯ টি ইউনিয়নে এম ডিজি ইউনিয়ন গড়ার লক্ষ্যেকার্যক্রম শুরু কওে তখন থেকে ১৬ মে ২০১২ সালে ইউনিয়ন সমন্বয়কারী হিসাবে যোগদান করি। তিনি রাইপুর ও ধানখোলা ইউনিয়নে সফল ভাবে কার্যক্রম পরিচালনা কওে আসছি। ২০১৭ সালের মাঝামাঝি ধানখোলা ইউনিয়নের সমন্বয়কারী হিসাবে নিয়োজিত ছিলাম। হঠাৎ গত ১০ মে .২০২২ ইং তারিখে গাংনী এরিয়া সমন্বয়কারী হেলালউদ্দীন অফিসে ডেকে বলেন, আপনাকে বদলী করে অন্য ইউনিয়নে দেয়া হবে। এক পর্যায়ে গত ২৪ মে অফিসে স্টাফ মিটিং অনুষ্ঠিত হয়। ঐদিন মধ্য রাতেই হঠাৎ াামাকে কিছু না জানিয়ে ইউসি সিয়োগের বিঞ্জপ্তি প্রকাশ করে আমাকে অব্যাহতি বাব াদ দেয়া হয়েছে যা আমি ফেইস বুক মারফত জানতে পারি। এরিয়া কো-অর্ডিনেটর হেলালউদ্দীন বলেনম কোন কারন ছাড়াই গোলাম আম্বিয়াকে বাদ দেয়া হয়েছে। কোন কৈফিয়ত দিতে তিনি রাজী না বলেও সাফ জানিয়ে দেন। বিনা কারনে চাকরিচ্যুত করাকে অত্যন্ত দুঃখজনক ও অমানবিক। যশোর আঞ্চলিক কো-অর্ডিনেটর খোরশেদ আলমের সমপূর্ণ নিয়ম বহির্ভূত স্বেচ্ছাচারীতা অসদাচরণ অত্যন্ত দুঃখজনক । তাই এসব অনিয়মের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি।
কো-অর্ডিনেটর খোরশেদ আলম স্টাফদের সাথে অসদাচরণ ও অসম্মান করে থাকেন।একটি স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠান মনে করা হলেও এর সাথে জড়িত কয়েকজন ব্যাক্তি আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ হয়ে গেছে। মাঠ পর্যায়ের সক্রিয় কর্মীদের ধানখোলা ইউনিয়ন সমন্বয়কারী গোলাম আম্বিয়া জানান, ঐ রকম স্বেচ্ছাচারী সমন্বয়ককের সাথে কাজ করা যায় না। তিনি একজন অসামাজিক মানুষ।তিনি কাউকেই মানুষ মনে করেন না। মানবতা তার কাছে তুচ্ছ। তিনি আরও জানান, হাঙ্গার প্রজেক্টের শুরু থেকেই আমি বিনা পারিশ্রমিকে প্রজ্েেক্টর নানা কর্মসূচি পালনে আন্তরিকভাবে কাজ করে আসছি। আরও জানা গেছে,যে প্রতিষ্ঠানে কোন স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা নেই, সেরকম প্রতিষ্ঠানে কাজ করা সম্ভব না। আমার সহকর্মী র্আও ২ জন বামন্দী ইউপির সমন্বয়কারী আহসান হাবিব ও সাহারবাটি ইউপির সমন্বয়কারী আজিবার রহমান স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করেছেন বলে জানা গেছে। আরও জানা গেছে, রাইপুর ইউপি সমন্বয়কারী রাবেয়া খাতুনকেও অব্যাহতি দেয়া হয়েছে।
ইতোমধ্যেই কার্যক্রমে ভাটা পড়েছে। নানা প্রকল্প বাস্তবায়নের নামে প্রকল্পটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

You must be Logged in to post comment.

পার্বতীপুরে নারী সহ তিন মাদক কারবারি আটক ছবি তুলতে গিয়ে পুলিশের বাধার মুখে সাংবাদিক     |     ডোমারে সচেতনতামূলক কার্যক্রম গ্রহণের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হয়েছে সামাজিক সম্প্রীতি সমাবেশ।     |     পঞ্চগড়ের বোদায় করতোয়ায় নৌকাডুবি : মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৬৮     |     গাংনীর নিরহঙ্কার সদালাপী আবু হানিফ মেম্বর আর নেই। হাজারো মানুষের ভালবাসায় দাফন সম্পন্ন     |     ডোমারে শারদীয় দূর্গাপুজায় এবারে থাকবে  সিসিটিভি ক্যামেরা বলছেন:পুলিশ     |     মাদারীপুর আদালত প্রাঙ্গনে বিচারপতির বৃক্ষরোপণ     |     লালমনিরহাটে ৫দিন ব্যাপী শারদীয় দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হবে     |     আটোয়ারীতে তথ্য মেলা অনুষ্ঠিত     |     আটোয়ারীতে জঙ্গলমারা বিষ স্প্রে করে ক্ষেত নষ্ট করার অভিযোগ প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে     |     ফুলবাড়ীতে নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির সভা অনুষ্ঠিত।     |