ঢাকা, বুধবার, ২১শে ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ইং | ৯ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ঘাটাইলে থামছেই না গজারী গাছ লাল মাটি কাটার মহাৎসব

রবিউল আলম বাদল ঘাটাইল(টাঙ্গাইল) প্রতিনিধিঃ-টাংগাইলের ঘাটাইল উপজেলায় জাতীয় সংসদ নির্বাচন শেষে প্রভাব শালীদের ছত্রছায়ায় প্রশাসনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে রাতের আধারে এক যোগে চলছে গজারি গাছ এবং লাল মাটি কাটার মহোৎসব। ফলে গ্রামীন রাস্তা দিয়ে মাটির ড্রাম চলাচলের ফলে ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে গ্রামীন রাস্তা। হুমকির মুখে পড়েছে বনের জীব বৈচিত্র। মাটি খেকোরা মেতে উঠেছে লাল মাটি কাটার মহাৎসবে।এলাকা পরিনত হয়েছে অন্যায়ের রাজত্ব।
সরেজমিনে এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায় ঘাটাইল উপজেলায় পুর্বে এক তৃতীয়াংশ জুড়ে রয়েছে বিশাল পাহাড়ি বনাঞ্চল। বিশাল এই বনভূমিতে রয়েছে শাল, সেগুন, গজারি সহ বিভিন্ন প্রজাতির সামাজিক বনায়নের গাছ। ধলাপাড়া রেঞ্জের আওতায় রয়েছে ৬টি বিট বটতলী, ঝড়কা, চৌরাসা, দেওপাড়া, ধলাপাড়া ও সাগরদীঘি।
সংঘবদ্ধ কাঠ চোরেরা বনবিভাগের নাকের ডগায় প্রকাশ্য দিবালোকে শাল, সেগুন, গজারি সহ বিভিন্ন প্রজাতির সামাজিক বনায়নের গাছ কেটে সাবাড় করে দিচ্ছে। এতে করে বন উজাড় হচ্ছে প্রকৃতিক হারাচ্ছে ভারসাম্য । সরকার হারাচ্ছে কোটি কোটি টাকার রাজস্ব নির্বিচারে চলছে বনের গাছ কাটা প্রশাসনের নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে প্রভাবশালীদের ছত্র ছায়ায় কিছু অসাধু মাটি ব্যবসায়ীরা ভেকু দিয়ে রাতে আধারে ২৫ থেকে ২৭টি পয়েন্টে অবৈধ ভাবে লাল মাটি কাটার মহাৎসব।
লক্ষিন্দর ইউনিয়নে ছিদ্দিক আলী বাজারের পশ্চিম পার্শে দুলালিয়া গ্রামের মৃত সোহরাব আলীর ছেলে মিষ্টার আলী ও তার সহযোগী একই গ্রামের সমেজ উদ্দিন (সমে) দীর্ঘ দিন যাবৎ লাল মাটি কেটে দেদারসে বিক্রি করে আসছে।
রসুলপুর ইউনিয়নে প্রায় ১০-১৫ ফুট গর্ত করে মাটি কেটে নিয়ে যাচ্ছে, ট্রাক দিয়ে মাটি নেওয়ার সময় গ্রামীন জন পথ এবং পাকা রাস্তা ভেঙ্গে যাচ্ছে, রাস্তার ধুলায় পাশে থাকা ফসলের মধ্যে প্রলেপ পড়ে যায়, শুধু তাই নয় ধুলা ঢুকে যাচ্ছে দোকান পাঠ বসত বাড়ির ঘরের ভেতর। সংগ্রামপুর, ধলাপাড়া, দেওপাড়া, সাগরদিঘী, সন্ধানপুর,পাহাড়ী প্রতিটি ইউনিয়নে চলছে এখন মাটি খেকোদের রাজত্ব চলছে।

পাহাড়ের লাল মাটি কাটার বিষয়ে জেলা পরিবেশ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক জমির উদ্দিন মুঠোফোনে জানান লাল মাটি কাটার জন্য আমরা ইতি মধ্যে কয়েক জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছি। মাটি কেটে যারা পরিবেশ নষ্ট করে তথ্য সাপেক্ষ তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
লাল মাটি কাটার বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ইরতিজা হাসান মুঠোফোনে জানান আমরা লাল মাটি যাতে কাটতে না পারে এর জন্য বড় আকারে অভিযান শুরু করব। এর মাঝে আমারা অনেক কেই জরিমানা করেছি।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে এলাকাবাসী জানায় শুক্রবার, শনিবার অফিস বন্ধ থাকার কারনে রাতের অধারে কে বা কারা বনের গাছ এবং লাল মাটি কেটে নিয়ে যায় তা আমরা জানিনা।
এ বিষয়ে ঘাটাইল এবং মধুপুর রেঞ্জের দায়িত্বরত কর্মকর্তা জেলা সহকারী বনসংরক্ষক(এসিএফ) আশিকুর রহমান মুঠোফোনে জানান ঘাটাইলে বিভিন্ন এলাকায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছি এবং অভিযন চলমান থাকবে।

You must be Logged in to post comment.

ফুলবাড়ীতে বিজিবি কতৃক উদ্ধারকৃত সাড়ে ৭ কোটি টাকার মাদক ধ্বংস     |     ঝিকরগাছায় গাছি ও ফুল চাষীদের মাঝে উৎপাদন সামগ্রী বিতরণ     |     সাংবাদিক বিপ্লবের উপর হামলার ঘটনায় মামলা      |     ফুলবাড়ীতে ২৬টি বেসরকারী এতিমখানায় এক কোটি ৩১লাখ ২৬হাজার টাকার চেক বিতরণ।     |     ঘাটাইলে সরকারী হাসপাতালের নাকের ডগায় গড়ে উঠেছে বেসরকারি ক্লিনিক     |     লালমনিরহাটের পৃথক ঘটনায় সড়কে নিহত ২     |     মাছের আঁশে তৈরি হচ্ছে প্রসাধনী-বৈদ্যুতিক পণ্য টাঙ্গাইলের মাছের উচ্ছিষ্ট যাচ্ছে বিদেশে     |     রুহিয়ায় ইউনিয়ন পরিষদের উন্নয়ন সহায়তা তহবিল হতে স্কুল ব্যাগ বিতরণ     |     ঠাকুরগাঁওয়ে ছয় শতাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নেই শহীদ মিনার     |     ঘাটাইলে নব নির্বাচিত সংসদ সদস্যকে  সংবর্ধনা ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত      |