ঢাকা, শুক্রবার, ১লা মার্চ ২০২৪ ইং | ১৮ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

তরমুজ মানবদেহ গঠনে আল্লাহতায়ালার অফুরন্ত নেয়ামত

খান আঃ জব্বার শিবলী, রূপসা : বাণিজ্যিকভাবে প্রথমবারের মত তরমুজ চাষে ভাগ্য ফিরেছে রূপসার চাষী মোঃ ইমরান শেখ ও মোঃ টিটো শেখ এর । ক্ষেত থেকে বিক্রি হচ্ছে বেশিরভাগ তরমুজ। ফলন যেমন ভালো হয়েছে, তেমন হয়েছে সুস্বাদু। কৃষি অফিসের পরামর্শ ও সার্বিক তত্ত্বাবধানে তাদের এই সফলতা বলে জানালেন ওই দুই কৃষক। তাদের সাফল্যে এলাকায় পড়েছে ব্যাপক সাড়া। প্রতিদিন ক্ষেত দেখতে আসছে এলাকার অসংখ্য উৎসুক মানুষ। কেউ আসছে ক্রেতা হিসেবে। আবার কেউ আসছে এক নজর দেখতে। অনেকেই ইমরান ও টিটোর সাফল্য দেখে এ চাষে আগ্রহী হয়ে উঠছে। আগামীতে তরমুজ চাষে এ এলাকায় কৃষি বিপ্লব ঘটবে বলে দাবি স্থানীয়দের। রূপসা উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার শ্রীফলতলা ইউনিয়নের জোয়ার এলাকার বাসিন্দা মৃত দৌলত আলী শেখের ছেলে চাষি মোঃ ইমরান শেখ ও তার ভাইপো একই গ্রামের বাসিন্দা মোঃ ইব্রাহিম শেখের ছেলে মোঃ টিটো শেখ গেল বছর ধান চাষে আশানুরুপ ফলন পায়নি। অনেকটা হতাশ হয়ে তারা পরামর্শ নেন উপজেলা কৃষি অধিদপ্তরের। এ সময় তাদের তরমুজ চাষের পরামর্শ দিয়ে সার্বিক সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন সংশ্লিষ্ট কৃষি অধিদপ্তর। কৃষি অধিদপ্তরের সহযোগিতায় তারা প্রথমবারের মতো ৮ আট একর জমিতে সুইট ড্রাগন (সাদাটে) ও পাকিজা (কালো) এই দুই জাতের তরমুজের আবাদ শুরু করেন। মাছি পোকা দমনে ক্ষেতে স্থাপন করা হয় সেক্স ফেরোমন ফাঁদ। বিঘা প্রতি উৎপাদন ব্যয় হয়েছে বিশ হাজার টাকা। ফলনও হয়েছে বাম্পার। গড়ে তরমুজের ওজন হয়েছে প্রায় চার কেজি। ক্ষেত থেকে পনের টাকা কেজিদরে বিক্রি হচ্ছে এসব তরমুজ। ইতোমধ্যে পাঁচ শতাধিক তরমুজ বিক্রি করেছেন চাষি ইমরান শেখ ও টিটো শেখ। সাধারণত ডিসেম্বরের শেষে তরমুজের বীজ বপন করতে হয়। বীজ বপনের তিনমাস পর তরমুজ বিক্রি শুরু হয়।
জোয়ার গ্রামের মোঃ ইকবাল শেখ বলেন, ‘গত বছর ধানের ফলন ভালো না হওয়ায় এলাকার কয়েকজন কৃষক তরমুজ আবাদে ঝুঁকে পড়েন। তিনি বলেন, ফলনও হয়েছে বাম্পার। ফলে আগামীতে কৃষকরা তরমুজ আবাদে বেশি হয়ে উঠেছে।’ তরমুজ চাষি মোঃ ইমরান শেখ বলেন, ‘গেল বছর ধান চাষে ফলন ভালো না হওয়ায় উপজেলা কৃষি অফিসে যোগাযোগ করলে পরামর্শ দেওয়ার পাশাপাশি সার্বিক সহযোগিতা করেন কৃষি অফিসার কৃষিবিদ ফরিদুজ্জামান। এমনকি ক্ষেত শুরু করার থেকে সার্বক্ষণিক খোঁজ-খবর নিতেন তিনি। ফোন করলেই উনি আমাদের ক্ষেতে চলে আসেন। এখনো উপজেলা কৃষি অফিস থেকে খোঁজ-খবর নিতে আসেন। তিনি বলেন, কৃষি অফিসের সার্বিক সহযোগিতা না পেলে কোন ভাবেই চাষাবাদ করে এ পর্যন্ত আসতে পারতাম না। আগামীতে আরো বেশি জমিতে তরমুজের আবাদ করার ইচ্ছা রয়েছে বলে জানালেন তিনি। উপজেলা কৃষি অফিসার ও কৃষিবিদ মোঃ ফরিদুজ্জামান এ প্রতিবেদককে বলেন, ‘রূপসার জোয়ার এলাকার কৃষকরা গত কয়েক বছর ধানে ভালো ফলন না পেয়ে অনেকটা হতাশ হয়ে পড়ে। তারা কৃষি অফিসে যোগাযোগ করলে তরমুজ চাষের পরামর্শ দেয়া হয়। এতে তারা আগ্রহী হয়ে ওঠেন। আমরা ভেবে দেখলাম, দেশের অন্যান্য স্থানে যদি তরমুজের বাম্পার ফলন হয় তা’হলে রূপসায় হবেনা কেন। সে মোতাবেক এখানে ৮ একর জমিতে কৃষক ইমরান ও টিটো তরমুজের চাষ শুরু করে। বাণিজ্যিক ভিত্তিতে রূপসায় এটা প্রথম আবাদ। এদেরকে যত রকম সাপোর্ট দরকার তার সবই দিয়েছি। মৈশাঘুনি ব¬কের উপ-সহকারী কৃষি অফিসার নীতিশ চন্দ্র বালা ও উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার শেখ সাখাওয়াত হোসেনসহ আমি নিজে প্রতিনিয়ত খেতে এসে সার্বিক তদারকি করেছি। তিনি বলেন, এদের সফলতা দেখে আগামীতে এ এলাকায় তরমুজ চাষে আগ্রহী অনেকেই আমাদের সাথে যোগাযোগ করছে।
তাছাড়া মানব দেহগঠনে তরমুজের ৯টি উপকারিতার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। তরমুজে রয়েছে সমৃদ্ধ ভিটামিন এ ও সি এবং সহ স্বাস্থ্যকর বিভিন্ন উপাদান। এগুলো আমাদের শরীরে ইতিবাচক ভূমিকা পালন করতে সক্ষম। চলুন আমরা উপকারিতাগুলো জেনে নিই।
উপকারিতা ১ : তরমুজ ত্বকের উপকার করে
যদি আপনার ত্বকে মেচতা থাকে, তবে তা থেকে রেহাই পেতে প্রতিদিন তরমুজ খান। এই বিশেষজ্ঞদের কথা এমন, তরমুজের সমৃদ্ধ ভিটামিন ‘এ’ দেহের ত্বকের জন্য উপকারী। নিয়মিত তরমুজ খেলে আপনার ত্বকের হারিয়ে যাওয়া লাবণ্য ফিরে আসবে এমন সম্ভাবনা প্রবল।
উপকারিতা ২ : তরমুজ হার্টকে সুস্থ রাখে
জরিপের ফল অনুসারে, তরমুজের একটি বিশেষ উপাদান হার্টের কর্মক্ষমতা বাড়ায়। তা ছাড়া, তরমুজের ভিটামিন-সি, ক্যারোটিন ও পটাসিয়াম শরীরের কলেস্টেরল কমাতে সাহায্য করে। এর ফলে আপনার হার্ট বড় ধরনের বিপদ থেকে সবসময় সুরক্ষিত থাকে। কিন্তু তার মানে এই নয় যে, যারা হার্টের সমস্যায় ভুগছেন, তারা স্রেফ তরমুজ খেয়ে সুস্থ হবার আশায় দিন কাটাবেন। না, মোটেই তা নয়। বুকে ব্যথা হলে বা হার্টের সমস্যা থাকলে অবশ্যই চিকিত্কসের শরণাপন্ন হোন।
উপকারিতা ৩ : তরমুজ কিডনি বা বৃক্কের কর্মক্ষমতা বাড়ায়
আপনাদের কেউ কি কখনও কিডনির পাথর রোগে আক্রান্ত হয়েছেন? কিডনিতে পাথর হলে এবং তা নির্দিষ্ট সীমা অতিক্রম করলে প্রচন্ড ব্যথা হতে পারে। অনেকে এ ব্যথা সহ্য করতে পারেন না। যারা, এ থেকে সাবধান থাকতে চান, তাদের উচিত নিয়মিত তরমুজ খাওয়া। না, নিয়মিত তরমুজ খেলে আপনার কিডনি পাথরমুক্ত থাকবে, এমন নয়। তবে, এতে আপনার কিডনির ওপর চাপ কমবে। আর কিডনি যখন তার কাজ ঠিকমতো করবে, তখন সেখানে পাথর হবার আশঙ্কাও কমবে। নিয়মিত তরমুজ খেলে আপনার প্রস্রাবের ধারা স্বাভাবিক থাকবে। এতে কিডনি পাথর রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কমবে।
উপকারিতা ৪ : তরমুজ দৃষ্টিশক্তি বাড়ায়
প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায় তরমুজ থাকলে আপনার দৃষ্টিশক্তি ভালো থাকবে। কারণ, তরমুজে প্রচুর ভিটামিট ‘এ’ থাকে। আর ভিটামিন ‘এ’ থাকা না-থাকার ওপর নির্ভর করে দৃষ্টিশক্তি স্বাভাবিক থাকা বা না-থাকা। ভিটামিন ‘এ’-কে চোখের পুষ্টি-বিশেষজ্ঞ বলা হয়।
উপকারিতা ৫ : তরমুজ হাড় সুস্থ রাখে
মানুষের বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে শরীরে হাড়ে ক্যালসিয়ামের অভাব দেখা দেওয়া স্বাভাবিক। এ সময় শরীরে ক্যালসিয়ামের চাহিদা বাড়ে। এ বাড়তি চাহিদা পূরণ না-হলে হাত বা পায়ে ব্যথা হবে; হাঁটাহাঁটিতে সমস্যা হবে। অথচ বয়স বাড়লে নিয়মিত হাঁটাহাঁটি করা সার্বিকভাবে শরীর সুস্থ রাখার জন্য জরুরী। যদি আপনি নিয়মিত তরমুজ খান, তবে এর ক্যারোটিন ও ক্যালসিয়াম আপনার হাড় মজবুত রাখবে। এর সুফল পাবেন বয়সকালে।
উপকারিতা ৬ : তরমুজ রক্তচাপ স্থিতিশীল রাখে
আপনার রক্তচাপ ঠিক আছে কি? অনেকেই খাদ্যগ্রহণে সতর্কতা অবলম্বন ও শরীরচর্চার মাধ্যমে রক্তচাপ স্থিতিশীল রাখার চেষ্টা করেন। চিকিত্সকরা বলছেন, খাদ্যতালিকায় নিয়মিত তরমুজ রাখুন। কারণ, তরমুজে প্রচুর পটাসিয়াম ও ম্যাগনেসিয়াম থাকে, যা রক্তচাপ স্থিতিশীল রাখতে সাহায্য করে।
উপকারিতা ৭ : পেশীর ব্যথা থেকে বাঁচতে তরমুজ খান
অনেকেই দেখা যায় শরীরচর্চার পর পেশীর ব্যথায় ভোগেন। এ থেকে বাঁচতে আপনাকে তরমুজ সাহায্য করতে পারে। শরীরচর্চার অন্তত এক ঘন্টা আগে এক কাপ তরমুজের জুস পান করুন। দেখবেন, শরীররচর্চার পর পেশীতে ব্যথার অনুভূতি তুলনামূলকভাবে কম হচ্ছে। তবে মনে রাখবেন, তরমুজের জুসে সুগারের পরিমাণ একটু বেশি। তাই জুস না-খেয়ে সরাসরি তরমুজ খাওয়া ভালো।
উপকারিতা ৮ : তরমুজ অ্যাজমা প্রতিরোধে সহায়ক
সাধারণ মানুষ নিয়মিত তরমুজ খেয়ে অ্যাজমা বা হাঁপানি প্রতিরোধ করতে পারেন। তরমুজে প্রচুর ভিটামিন-সি থাকে। যারা ইতোমধ্যে অ্যাজমায় আক্রান্ত হয়েছেন, তারাও তরমুজ খেয়ে উপকার পেতে পারেন। আরেকটি বিষয়, তরমুজ ফুসফুস সুস্থ রাখতেও ইতিবাচক ভূমিকা রাখে।
উপকারিতা ৯ : তরমুজ প্রোস্টেটের ক্যান্সার প্রতিরোধে সহায়ক
যে-কোনো ক্যান্সার প্রতিরোধে তরমুজ ইতিবাচক ভূমিকা পালন করে—এমনটা ঠিক নয়। তবে, তরমুজে ক্যান্সার-প্রতিরোধক উপাদান আছে। বিশেষ করে, এটি প্রোস্টেটের ক্যান্সার প্রতিরোধে সাহায্য করে।
এখন আমরা তরমুজ খাওয়ার সঠিক তরিকা সম্পর্কে বলবো।
১. গ্রীষ্মকালে প্রচুর গরমে অনেকেই ঠান্ডা তরমুজ খেতে পছন্দ করেন। কিন্তু মনে রাখবেন, ঠান্ডা তরমুজ খেতে ভালো হলেও, আপনাকে সমস্যায় ফেলতে পারে। অতিরিক্ত ঠান্ডা তরমুজ আপনার পাকস্থলির ক্ষতি করতে পারে।
২. জ্বর, দাঁতের এলার্জি, মুখের ঘা, কিডনি ও পেটের সমস্যায় ভুগছেন—এমন মানুষ; গর্ভবতী নারী; এবং ডায়াবিটিসের রোগীদের তরমুজ খাওয়ার সময় সাবধানতা অবলম্বন করা উচিত। আর নারীদের উচিত মাসিকের সময় তরমুজ এড়িয়ে চলা।
৩. একটা তরমুজ কেটে একবারে খেয়ে ফেলা উচিত। অনেকে ফ্রিজে রেখে কয়েক দিন ধরে একটা তরমুজ খান। এটা ঠিক না। এতে তরমুজের ফ্রেসনেস কমে যায়। সূত্র: সিএসআই-চায়না বেতার।
তরমুজ খুব উপকারী ফল। আমরা জানি, তরমুজ স্বাস্থ্যের জন্যও খুবই উপকারী। কথায় আছে অতিরিক্ত কোনো কিছুই ভালো না। তেমনি তরমুজের নানা স্বাস্থ্যকর রুপের আড়ালে রয়েছে ক্ষতিকর দিক। তবে তরমুজে ক্ষতির চেয়ে উপকারই বেশি। তরমুজে রয়েছে ৯২ শতাংশ জলীয় উপাদান যা শরীরের প্রয়োজনীয় পানির চাহিদা পূরণ করে। ফাইবার সমৃদ্ধ তরমুজে রয়েছে ভিটামিন এ, বি৬, সি, এবং খনিজ উপাদান পটাসিয়াম যা রোগ প্রতিরোধ করে, ওজন কমাতেও সাহায্য করে। তরমুজের উপকার আমরা অনেক শুনেছি। আজকে তাই ক্ষতির কথা জানানোর চেষ্টা। দেখে নিন বেশি তরমুজ খেলে কি ক্ষতি হতে পারেন।
লাইকোপিন নামক রাসায়নিকের কারণে তরমুজের রং উজ্জ্বল ও গা হয়। লাইকোপিন এক প্রকার অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা অধিক মাত্রায় শরীরে গেলে পেটের নানা সমস্যা হতে পারে। হজমের সমস্যাও দেখা দিতে পারে।
তরমুজে থাকে প্রচুর পরিমাণ পটাসিয়াম। এই খনিজ উপাদান আমাদের হার্ট ভাল রাখে, পেশী শক্তি বাড়ায়, হাড়ের গঠন মজবুত করে। কিন্তু, অতিরিক্ত পটাসিয়াম শরীরে গেলে হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ে, পালস রেট কমে যায়।
নিউট্রিশনিস্ট রীতেশ তিওয়ারি বলেছেন, প্রতি ১০০ গ্রাম তরমুজে ক্যালোরির পরিমাণ ৩০ ও শর্করার পরিমাণ প্রায় ৬ গ্রাম। একদিনে ৫০০ গ্রাম পর্যন্ত তরমুজ হজম করা সম্ভব, কারণ এতে শরীরে ঢোকে ১৫০ ক্যালোরি। কিন্তু, এর থেকে বেশি তরমুজ খেলে সেটা শরীরের জন্য ক্ষতিকর হয়ে দাঁড়ায়।

You must be Logged in to post comment.

গাংনীর হিজলবাড়ীয়ায় মসজিদ কমিটি নিয়ে দ্ব›েদ্ব পাল্টা সংবাদ সম্মেলন     |     গাংনীতে সাধারন সদস্যপদে উপ নির্বাচন সাহারবাটি ইউপির ৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বর প্রার্থী হাফিজুল সবার সেরা : ভোটার এলাকায় পোষ্টার শোভা পাচ্ছে     |     গাংনীতে আইন শৃংখলা ও চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত     |     রূপসায় এমপি সালাম মূর্শেদীর বিরুদ্ধে অপপ্রচার বন্ধের দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত      |     আটোয়ারীতে প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ তদন্ত করলেন মাউশি     |     কালকিনিতে পরিছন্নকর্মীর ডেলিভারিতে গৃহবধুর মৃত্যুর অভিযোগ     |     ঝিকরগাছার নাভারণ হাইওয়ে পুলিশের ওপেন হাউজ ডে পালন     |     লালমনিরহাটে ট্রাকের ধাক্কায় মাস্টার্স পরীক্ষার্থী নিহত     |     ঘাটাইলে আইন শৃঙ্খলা কমিটির  মাসিক সভা অনুষ্ঠিত      |     গাংনীর ১০৪ যুবককে বন্দীকে আটক করেছে মালেশিয়ান ইমিগ্রেশb পুলিশ। গাংনী থানায় ভুক্তভোগীদের মানবপাচার মামলা     |