ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৭শে ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ইং | ১৫ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

দালালের মাধ্যমে বিদেশ গিয়ে প্রতারিত- মেহেরপুরের তিন শতাধিক যুবক মালয়েশিয়ায় মানবেতর জীবন-যাপন

আমিরুল ইসলাম অল্ডাম মেহেরপুর জেলা প্রতিনিধি : পরিবারের সদস্যদের কথা চিন্তা করে একটু সুখের আশায় পাড়ি জমিয়েছিলেন মেহেরপুরের তিন শতাধিক যুবক। দালালের খপ্পরে পড়ে ৩-৬ মাস কাজ না পেয়ে মালয়েশিয়ায় মানবেতর জীবন-যাপন করছেন তারা। লিখিত অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস পুলিশের।

জানা গেছে, মেহেরপুর সদর,গাংনী ও মুজিবনগর উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের তিন শতাধিক যুবক সহায়-সম্বল বিক্রি করে মালয়েশিয়ায় ভাল কাজ-কর্ম পাওয়ার আশায় দালালের হাতে তুলে দিয়েছিলেন জনপ্রতি ৫-৭ লাখ টাকা। ৩-৬ আগে মালয়েশিয়ায় গেলেও আকামা (কাজের অনুমতিপত্র) না পাওয়ায় কর্মহীনভাবে মানবেতর জীবন-যাপন করছেন। দালাল চক্রটি অন্যথায় বিক্রি করায় কাজ না পেয়ে তারা খাবার-পানি সংকটে ভূগছেন। অন্যদিকে ঋণের টাকা পরিশোধ না করতে পেরে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন এনজিওর লোকেরা বাড়িতে এসে ভূক্তভোগীদের পরিবারকে চাপ দিয়ে আসছে। এছাড়াও প্রবাসে জিম্মিকারীরা এসব ভূক্তভোগীদের প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে। ভূক্তভোগীদের আর্তনাদের এই সকল ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।
মালয়েশিয়ায় জিম্মাকারীদের কাছে আটকে থাকা কয়েকজন ভিডিওর মাধ্যমে জানান, মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার সাহেবনগর গ্রামের কেএনএফএইচ বালিকা বিদ্যালয়ের লাইব্রেরিয়ান আব্দুল মাজেদ, হাড়াভাঙ্গা গ্রামে অবস্থিত এইচবি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রাজু আহমেদ, কাজীপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক সদস্য শরিফুল ইসলাম ওরফে ন্যাড়া,কাজীপুর এলাকার মুসা কলিম ও,সুরুজ, বালিয়াঘাট গ্রামের আনিসুল হক মাস্টারের ছেলে শোভন এর মাধ্যমে ঢাকায় নাভিরা ও মুসা কলিম এন্টারপ্রাইজ নামের এজেন্সির মাধ্যমে টাকা দিয়ে ভালো কাজের স্বপ্ন দেখে মালয়েশিয়ায় এসেছিলাম। গেল ৩-৬ মাসেও দালাল চক্রের সদস্যরা কোন কাজ দিতে পারেনি। ভাল কাজের আশ^াসে প্রতিনিয়ত দালাল চক্রের পক্ষ থেকে সামান্য খাবার ও পানি দিচ্ছে। যা যথেষ্ঠ নয়। প্রতিবাদ করতে গেলে, প্রাণনাশের হুমকি অব্যাহত রেখেছে।
এদিকে সন্তান ও পরিবারের সদস্যদের স্বাবলম্বী করার লক্ষ্যে কেউ রেখেছেন জমি বন্ধক, কেউ সুদের উপরে টাকা নিয়ে, কেউ বা নিয়েছেন এনজিও থেকে ঋণ। এখন যাদের কাছ থেকে টাকা নিয়েছেন তারা বাড়ির উপর এসে টাকা নেওয়ার জন্য পরিবারের সদস্যদের চাপ সৃষ্টি করছে।
এদিকে,দালাল চক্রের সাথে জড়িতদের বাড়িতে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে,তারা গা ঢাকা দিয়েছেন।
এ বিষয়ে গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রীতম সাহা জানান,ভূক্তভোগীদের পরিবারের পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ পায়নি। তবে প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিষয়টি খোঁজখবর নিয়ে দোষী প্রমাণিত হলে,তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মেহেরপুর পুলিশ সুপার এস এম নাজমুল হক (পিপিএম) জানান,
আমরা প্রাইমারি ইনভেস্টিগেশন শুরু করেছি। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

You must be Logged in to post comment.

রংপুরে বসতভিটা ও আবাদী জমি থেকে উচ্ছেদ পাঁয়তারা বন্ধের দাবিতে বিক্ষোভ     |     মেহেরপুরে ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামী গ্রেফতার     |     আটোয়ারীতে জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস পালিত     |     গাংনীতে ঐতিহাসিক ৭ মার্চ দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত     |     বোদায় জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস পালন উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা     |     গাংনীতে জাতীয় স্থানীয় সরকার দিবস পালন উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা     |     মেহেরপুরে জাতীয় পরিসংখ্যান দিবস পালিত     |     মাদারীপুরে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মদ্য পানের ভিডিও ভাইরাল, দুই শিক্ষক বরখাস্ত     |     টাঙ্গাইলে লাঠিয়াল বাহিনীর ভয়ে নিরাপত্তা হীনতায় পাঁচটিকড়ির কয়েকটি পরিবার     |     ছয় বছর ধরে শিকলবন্দী মিলনের জীবন, নিরুপায় পরিবার     |