ঢাকা, শুক্রবার, ৩রা ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ইং | ২১শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বান্দরবানে গ্রেপ্তার জঙ্গি রুপু মিয়ার বাড়ি সুনামগঞ্জের ছাতক।

ছাতক সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি: পার্বত্য চট্টগ্রামে ‘বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠনের ছত্রছায়ায়’ প্রশিক্ষণ এবং সশস্ত্র কর্মকাণ্ডের তথ্য পাওয়ার ভিত্তিতে রাঙ্গামাটির বিলাইছড়ির সাইজামপাড়া ও বান্দরবানের রোয়াংছড়ি বাজার এলাকায় র্যাব সদর দপ্তরের গোয়েন্দা শাখার নেতৃত্বে র্যাব-৭ ও র্যাব-১৫ অভিযান চালায়। সেই অভিযানে ১০জনকে গ্রেপ্তার করার পাশাপাশি বিপুল পরিমান অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করা র্যাব। সেই ১০জন জঙ্গিদের মধ্যে একজন গ্রেফতার হওয়া যুবক মো: রুপু মিয়া (২৫) ছাতক উপজেলার বাসিন্দা। সে উপজেলার ছৈলা ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের রাড়ীগাঁও গ্রামের আব্দুস সালামের তৃতীয় পুত্র। সে এমসি কলেজে অধ্যয়নরত বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে। পরিবার ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, রুপু মিয়া লেখাপড়ার পাশাপাশি চা-পাতা ও মোবাইলের কাভার ইত্যাদি পন্য গোবিন্দগঞ্জ, বাংলাবাজার, ছৈলা বাজার সহ বিভিন্ন হাট-বাজারে কেনা বেচা করতো। এলাকায় সে ভদ্র ছেলে হিসেবে পরিচিত। তবে তার এলাকার লোকজনের সাথে যোগাযোগ কম ছিল। ঢাকা- সিলেট বিভিন্ন জায়গা থেকে চাপাতা-মোবাইল এক্সেসরিচের পণ্য ক্রয় করতে যেতো। পরিবারের ধারনা, ঢাকা-সিলেট সেখান থেকেই কোন ভাবে সে জঙ্গিবাদে জড়িয়ে পড়েছেন বলে তারা মনে করেছেন। এদিকে তার পিতা আব্দুস সালাম বোর কৃষিতে নির্ভরশীল। তার বড় ভাই রাজা মিয়া ওমানে থাকেন। মেঝ ভাই নাছির মিয়া সিলেটের কাজী ম্যানসনের ৩য় তলায় ট্রেইলারি করেন। টিনের ব্যাটনের ঘর। জরাজীর্ণ অবস্থা। এলাকায় তাদের তাদের ভালো মানুষ হিসেবে পরিচিত। গ্রাম্য কোন জটিলতায় নেই তারা। রুপু মিয়ার পিতা আব্দুস সালাম বলেন, প্রায় ১৫-১৬দিন যাবৎ সে বাড়ীতে যোগাযোগ করে না। ছেলে বড় হয়েছে তাই ভাবতাম কয়দিন বাহিরে থাকবে আসবেনে। তবে তার মা বলতো খুঁজো নিতে তখন ফোন করলে বন্ধ পেতাম। এদিকে গত শুক্রবারে ভেবেছি শনিবারে ছাতক থানায় জিডি করবো। এর মধ্যেই বড় ভাই আব্দুল মনাফ মারা যান। বিকেলে আত্মীয় স্বজনেরা ফোনে জানায় ছেলে বান্দরবানে জঙ্গিদের হয়ে কাজ করতে যেয়ে ধরা পরে। মাথায় আকাশ ভেঙ্গে পরে। নানু মিয়া নামে তার এলাকার একজন জানান, কাজে কামে ব্যস্ত থাকতাম। কথা হতো তবে বেশ একটা নয়। আমার আব্বা মারা যান গত শনিবার (২১অক্টোবর) আব্বার জানাজায় চেয়ারম্যান সহ সবাই ছিলেন। কিন্তু রুপু মিয়া ছিল না। বিকালে শুনেছি সে জঙ্গি সদস্য হওয়ায় র্যাব গ্রেফতার করেছে। সে এমনভাবে জঙ্গি কার্যক্রমে জড়িয়ে পড়বে আমাদের কল্পনায়ও ছিল না।’ গ্রেফতার হওয়া রুপু মিয়ার ব্যাপারে ছৈলা আফজালাবাদ ইউনিয়ন চেয়ারম্যান গয়াস আহমদ বলেন, রুপু মিয়ার পিতা আব্দুস সালাম এলাকায় ভদ্র মানুষ হিসেবে পরিচিত। কারোর কোন অভিযোগ নেই। সেই ব্যাক্তির সন্তান এমন কাজ করবে কল্পনা করতে পারছি। বিষয় আমাদের জন্য লজ্জাজনক। সুনামগঞ্জ জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ আবু সাঈদ বলেন, তারঁ সম্পর্কে আরো গভীর ভাবে খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে। দেশে জঙ্গিদের কোন ছাড় নাই। স্থান নাই।
Write to Arifur Rahman Manik

You must be Logged in to post comment.

দেশের উন্নয়নের জন্য, সমাজ ব্যাবস্থা পরিবর্তনের জন্য, একজন দক্ষ ও অভিজ্ঞ নেতা হলেন শেখ হাসিনা: শাজাহান খান এমপি     |     বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে পর্নোগ্রাফি মামলায় ব্যবসায়ী গ্রেফতার     |     মেহেরপুরে ৯ম বার্ষিক শীতকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতা -২০২৩ অনুষ্ঠিত     |     লালমনিরহাটে শর্টপিচ ক্রিকেট টুনামেন্ট-২০২৩ অনুষ্ঠিত     |     টাঙ্গাইলে এক বিদ্যালয়ে দৃষ্টি নন্দন ক্রিকেট খেলার মাঠ     |     মুজিবনগর বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনে সংসদে বিল পাশ     |     খালি গ্যাস সিলিন্ডার নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন আওয়ামী লীগ নেতা     |     ভোলায় মোবাইল চোর চক্রের ১ সদস্য আটক; চোরাই ৬টি স্মার্ট ফোন উদ্ধার     |     মাদারীপুরে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালের উদ্বোধন     |     মেহেরপুর সরকারী কলেজের একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ওরিয়েন্টেশন ক্লাস শুরু     |