ঢাকা, শনিবার, ২রা মার্চ ২০২৪ ইং | ১৯শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

শেরপুরে বোরো ধানে বাম্পার ফলনে, কৃষকের মুখে সোনালী হাসির ঝিলিক!

বাদশা আলম, শেরপুর বগুড়া থেকে.চারদিকে সোনালী ধানের মৌ মৌ গন্ধে মুখরিত হয়ে উঠেছে বগুড়া জেলার শেরপুর উপজেলার গ্রামীণ জনপদ। দিগন্ত জোড়া সবুজ ফসলের মাঠ এখন সোনালী রঙে পরিণত হয়েছে। এসব দৃশ্য দেখে কৃষকের চোখে-মুখের সোনালী স্বপ্নগুলো প্রস্ফুটিত হয়ে উঠছে। ফসলের বাম্পার ফলনের স্বপ্ন ঘরে তুলতে কৃষকের মুখে হাসির ঝিলিক। তাইতো কৃষক-কৃষাণীরা এখন দারুণ ব্যস্ত ফসল তোলাকে কেন্দ্র করে। বোরো আবাদ হয়েছে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি।
জানা যায়, শেরপুর উপজেলায় বোরো ধান কাটা মাড়াই শুরু হয়েছে চলতি সপ্তাহেই। অনুকূল আবহাওয়ায় ইতোমধ্যে ধান মাড়াই শুরু হয়েছে। ধান মাড়াইয়ে পর খড় ভালোভাবে শুকিয়ে বাড়িতে তুলতে পারছেন। তবে আগামী দুই/তিন সপ্তাহের মধ্যে সব বোরো ধান কাটা ও মাড়াই শেষ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে দাবী করেছে কৃষি বিভাগ।
সরেজমিনে উপজেরার বিভিন্ন গ্রামে বোরো ধানের মাঠ ঘুরে দেখা যায়- প্রায় বোরো জমির ধান পেঁকে সোনালী বর্ণ ধারণ করে শীষগুলো বাতাসে দুলছে জমিতে। পাকা ধান কাটায় ব্যস্ত কৃষক-শ্রমিক। শ্রমিকের পাশাপাশি ধান কাটায় ব্যবহার হচ্ছে আধুনিক যন্ত্র কম্বাইন্ড হারভেস্টার মেশিন ও রিপার মেশিন।
কৃষকরা বলছেন, নানা প্রতিকূলতার পরও ধানের ফলন ভালো হয়েছে। তবে চলতি বোরো মৌসুমের শুরু থেকেই বৈরী আবহাওয়ার ধকল, তারপর দফায় দফায় কৃষি উপকরণের দাম বৃদ্ধি হওয়ায় বেশ বেগ পেতে হয়েছে কৃষককে।
চাষিরা বলছেন, গত মৌসুমের চেয়ে এবার চাষাবাদে বিঘাপ্রতি আড়াই থেকে তিন হাজার টাকা বেশি খরচ হয়েছে। কৃষি উপকরণের বাড়তি দর আর বৈরী আবহাওয়ার ধকল থাকলেও শেষ মুহূর্তে কাঙ্খিত ফলন হওয়ায় আশার আলো দেখছেন কৃষকেরা। তবে নতুন ধান হাটে তোলার পর ন্যায্য মূল্য পাবেন কি না, তা নিয়ে কৃষকদের মনে সংশয় রয়েছে।
উপজেলা কৃষি বিভাগ বলছে-প্রতিকূল আবহাওয়া, সহায়ক ধানের জাত নির্বাচন আর কৃষকদের আধুনিক কলাকৌশল প্রদান করায় এবার লক্ষ্যমাত্রার চেয়েও বেশি ফলন হবে। শেরপুর উপজেলায় চলতি মৌসুমে অন্তত ১২ থেকে ১৩ জাতের ধানের আবাদ করা হয়েছে। তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি চাষ করা হয়েছে উচ্চ ফলনশীল কাটারি, নাজির শাইল, জিরাশাইল ও ব্রি ৪৯, ব্রি ২৮, ব্রি-২৯, শুভলতা ও কাজল লতা জাত।
শেরপুর উপজেলার ভবানীপুর ইউনিয়নের ধান চাষী আব্দুল জলিল জানান, ১২ বিঘা জমিতে কাজল লতা জাতের বোরো ধান চাষ করেছেন। কাটা মাড়াই শুরু করেছেন ৩ বিঘা কাটা মাড়াই সম্পূর্ণ হয়েছে প্রতি বিঘায় গড়ে ২৪ মণ করে ফলন পেয়েছেন।
কুসুম্বী ইউনিয়নের আমন গ্রামের কৃষক আবু বকর, শাহাদৎ, নজরুল ইসলামসহ একাধিকরা বলেন, এবার পোকার মাকড় বেশি দেখা দিলেও কিটনাশক প্রয়োগ করার পর তা সেরে গেছে। তবে আমরা বিভিন্ন জাতের ধানের আবাদ করেছি। এবার বিঘা প্রতি ২০ থেকে ২৫ মন ধান হয়েছে। ১ বিঘা জমিতে বোরো ধানের আবাদে মোট খরচ পড়ে ১৪ থেকে ১৫ হাজার টাকা। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় ধান ও খড় ভালো ভাবে শুকিয়ে বাড়িতে তুলতে পারছি। তবে গত মৌসুমের চেয়ে এবার চাষাবাদে বিঘাপ্রতি আড়াই থেকে তিন হাজার টাকা বেশি খরচ হয়েছে। শ্রমিক মুজরীসহ সবকিছুর দাম চড়া। তবে খরচ বাদ দিয়ে বিঘা প্রতি ৩ হাজার টাকা থাকবে বলে আশা করছেন।
বিশালপুর ইউনিয়নের তেতুলিয়া গ্রামের চাষী রাশেদুল ইসলাম জানান, তিনি ১৭ বিঘা জমিতে ধান চাষ করেছে। কৃষিকাজে ব্যবহৃত উপকরণের মূল্য বৃদ্ধি হয়েছে, তাছাড়া এবার শ্রমিক মজুরীও বেশি। ১ বিঘা জমির ধান কাটতে প্রায় ৬ জন শ্রমিকের প্রয়োজন হয়। এতে প্রতি বিঘা জমির ধান ঘরে তুলতে শ্রমিক মজুরী দিতে হয় ৫ হাজার টাকা। সব মিলিয়ে আগের বছরের চেয়ে লাভের অংশ কমে গেছে। সারের দাম বেড়েছে। বাজারে ধানের ন্যায্য মূল্য পেলে পুষিয়ে যাবে। বহিরাগত শ্রমিকরা না আসায় এলাকার শ্রমিক দিয়ে বাড়তি মুল্যে ধান কাটা ও মাড়াইয়ের কাজ করছেন।

শেরপুর উপজেলার বিভিন্ন ধানের হাট ঘুরে দেখা গেছে, হাটে বি-আর-২৮ ৯০০ থেকে ৯৩০ টাকা, মিনিকেট ১১’শ থেকে ১১৫০ টাকা এবং স্থানীয় কাটারী ১০২০ থেকে ১১৭০ টাকা, আতপ ৯০ (সুগন্ধী) ধান ১৯২০ টাকা মণ দরে নতুন ধান বিক্রি হচ্ছে।

শেরপুর উপজেলা কৃষি অফিসার ফারজানা আক্তার বলেন, শেরপুর উপজেলায় চলতি মৌসুমে ২০ হাজার ৮০০ হেক্টর জমিতে বোরো চাষ করা হয়েছে। এর মধ্যে ২ হাজার হেক্টর ধান কাটা হয়েছে। মে মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে পুরোদমে ধান কাটা মাড়াই শুরু হয়েছে। চলতি মৌসুমে বোরো ধান আশানুরুপ ফলন হয়েছে।

You must be Logged in to post comment.

ঠাকুরগাঁওয়ে সাম্য ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক গোষ্ঠীর আন্ত:ক্লাব ইনডোর গেম অনুষ্ঠিত      |     লালমনিরহাটে জাতীয় বীমা দিবস পালিত     |     মেহেরপুরে ইজিবাইক-মোটর সাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত -১ : আহত-৩     |     বীমার মেয়াদ শেষ হয়েও টাকা পাচ্ছেননা ঠাকুরগাঁওয়ের গ্রাহকেরা      |     মেহেরপুরে জাতীয় বীমা দিবস-২০২৪ পালিত     |     আটোয়ারীতে জাতীয় বীমা দিবস পালিত     |     গাংনীর হিজলবাড়ীয়ায় মসজিদ কমিটি নিয়ে দ্ব›েদ্ব পাল্টা সংবাদ সম্মেলন     |     গাংনীতে সাধারন সদস্যপদে উপ নির্বাচন সাহারবাটি ইউপির ৩ নং ওয়ার্ডের মেম্বর প্রার্থী হাফিজুল সবার সেরা : ভোটার এলাকায় পোষ্টার শোভা পাচ্ছে     |     গাংনীতে আইন শৃংখলা ও চোরাচালান প্রতিরোধ কমিটির মাসিক সভা অনুষ্ঠিত     |     রূপসায় এমপি সালাম মূর্শেদীর বিরুদ্ধে অপপ্রচার বন্ধের দাবীতে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত      |