ঢাকা, রবিবার, ২৭শে নভেম্বর ২০২২ ইং | ১৩ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

২১ লাখ টাকার শুকনো মরিচসহ কাভার্ড ভ্যান ও চালক নিখোঁজ

পঞ্চগড় প্রতিনিধি:একুশ লাখ টাকার শুকনো মরিচ নিয়ে কাভার্ড ভ্যান নিখোঁজ হওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ছয়দিন ধরে মরিচ ভর্তি কাভার্ড ভ্যান ও চালকের কোন খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। মরিচসহ কাভার্ড ভ্যানটির খোঁজ পেতে তেঁতুলিয়া মডেল থানায় অভিযোগ করা হলেও এখন পর্যন্ত কাভার্ড ভ্যান, মরিচ ও চালকের কোন হদিস পাওয়া যায়নি।
অভিযোগে জানা গেছে, পঞ্চগড় জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলার তিরনইহাট ইউনিয়নের বকশিপাড়া গ্রামের মেসার্স জয় এন্টারপ্রাইজের স্বত্ত্বাধিকারী মরিচ ব্যবসায়ী মো. মজনু মিয়া দীর্ঘদিন ধরে মরিচের ব্যবসা করে আসছেন। নোয়াখালী ও ময়মনসিংহসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় মরিচ সরবরাহ করেন। গত বুধবার (১৯ অক্টোবর) নোয়াখালী জেলার চৌমুহনীর মেসার্স অরবিন্দ সাহা, মেসার্স খগপতি সাহা ও মেসার্স হাজী শাহাবুদ্দিনের কাছে ১১৭ ঢোপ বা প্রায় ছয় টন শুকনো মরিচ পাঠান। তেঁতুলিয়া উপজেলার শালবাহানহাট ইউনিয়নের মৃত বসিরউদ্দীনের ছেলে ট্রাক বন্দোবস্তকারী মো. দুলালের কাছে ট্রাকের খোঁজ করেন। পরে দুলাল তেঁতুলিয়ার বেহারীপাড়া এলাকার অপর ট্রাক বন্দোবস্তকারী শাহাদত হোসেনের কাছে ঢাকা মেট্রো-ট-২০-৩০৭৩ নামের একটি কাভার্ড ভ্যানের ব্যবস্থা করেন। ওই দিন বিকেলে তেঁতুলিয়া উপজেলার শালবাহানহাট বাজার থেকে ওই কাভার্ড ভ্যানে ১১৭ ঢোপ নিয়ে ট্রাকটি নোয়াখালীর চৌমুহনীর উদ্দেশ্যে রওনা হন। পঞ্চগড় থেকে চৌমুহনী পৌছতে নিয়মানুয়ায়ী দুই দিন সময় লাগার কথা। কিন্তু ছয় দিনেও মরিচ চৌমুহনীতে পৌছেনি। কাভার্ড ভ্যান ও চালক কারোর কোন খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না।
সহায় সম্বল হারিয়ে উপায় না পেয়ে মরিচসহ কাভার্ড ভ্যানটির খোঁজ পেতে মরিচ ব্যবসায়ী মো. মজনু মিয়া ট্রাক বন্দোবস্তকারী দুলাল, শাহাদত হোসেন ও ট্রাক চালক রিয়াদের নামে তেঁতুলিয়া মডেল থানায় অভিযোগ করেন।
মরিচ ব্যবসায়ী মো. মজনু মিয়া বলেন, কাভার্ড ভ্যান চালক রিয়াদ মরিচ নিয়ে চৌমুহনীতে মরিচ ক্রেতাদের কাছে পৌছে দেওয়ার কথা। কিন্তু দুদিনেও মরিচ ক্রেতাদের কাছে না পৌছলে ক্রেতারা তাকে ফোন দেন। এরপর আমি গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ট্রাক চালক রিয়াদকে ফোন দিলে সে ঢাকার কাঞ্চন ব্রীজে এবং শুক্রবার সকালের মধ্যে মরিচ পৌছে যাবে বলে জানায়। শুক্রবার সকালে ট্রাক চালককে ফোন দিলে ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। এখন পর্যন্ত তার ফোন বন্ধ রয়েছে। মরিচও ক্রেতার কাছে পৌছেনি। কাভার্ড ভ্যানেরও কোন খোঁজ মিলছে না।
কাভার্ড ভ্যানে ২১ লাখ টাকার শুকনো মরিচ পাঠানো হয়েছে। মরিচ উদ্ধার না হলে পুজি হারিয়ে পথে বসতে হবে বলে জানান তিনি।
ট্রাক বন্দোবস্তকারী দুলাল ও শাহাদত তাকে কাভার্ড ভ্যানটি ভাড়া করে দেন। এ ঘটনায় তাদেরও কোন সহযোগিতা পাওয়া যাচ্ছে না বলেও জানান মজনু। তেঁতুলিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু সাঈদ চৌধূরী বলেন, মরিচসহ কাভার্ড ভ্যান ও চালক নিরুদ্দেশ হওয়ার বিষয়ে মজনু মিয়া ও দুলাল নামে দুই ব্যাক্তি অভিযোগ দিয়েছেন। আমরা তথ্য প্রযুক্তির সাহায্যে বিষয়ি কে গুরুত্ব সহকারে দেখছি।

You must be Logged in to post comment.

দেরীতে হলেও ৮৭ লাখ টাকা ব্যয়ে ঐতিহাসিক মুজিবনগর আম্রকানন পরিচর্যার উদ্যোগ প্রশংসনীয়     |     ফুলবাড়ীতে বিনামুল্যে আইন সহায়তা পেতে লিগ্যাল এইড কমিটির উদ্বুদ্ধকরণ বিষয়ক সমন্বয় সভা।     |     নবাবগঞ্জে মানবতার কল্যাণে মানবিক দেওয়ালের যাত্রা শুরু     |     এক গৃহবধু’র লাশ রেলষ্টেশনের সীমানা রেলিং-এ ঝুলছিল, নানা গুঞ্জন, হত্যা না আত্মহত্যা!     |     মেহেরপুরের গাংনীতে বিদ্যুৎ স্পৃষ্টে অটোভ্যান চালকের মৃত্যু     |     নিখোঁজের দুইদিন পর নদীর পাড়ে মিলল গৃহবধুর মরদেহ     |     বিয়ে বাড়িতে দাওয়াত খাওয়াকে কেন্দ্র করে ডাসারে দু’পক্ষের মাঝে সংঘর্ষ \ মহিলাসহ আহত-২৫     |     টাঙ্গাইলে বারোমাসী মহৌষধী ‘ননী ফল’ বাণিজ্যিকভাবে চাষ হচ্ছে     |     আগামী মাসেই ব্যাংকগুলোর ডলার সংকট দূর হবে। –এফ সালমান রহমান     |     টাঙ্গাইলে প্রাণবন্ত বিশ্বকাপ ফুটবল     |